‘দুই দিন পর আমাকে নাও দেখতে পারেন’

Selina Hayar ivyসুরমা টাইমস ডেস্কঃ নারায়ণগঞ্জের মতোই সারাদেশের অবস্থা উল্লেখ করে নারায়ণগঞ্জ সিটি মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভি বলেছেন যতদিন রাষ্ট্রীয়ভাবে গডফাদারদের লালন পালন করা হবে ততদিন দেশে এ পরিস্থিতি চলবে। তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেন আজকে আমাকে দেখছেন ২ দিন পর নাও দেখতে পারেন। বুধবার ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্সটিটিউট অব গভর্নেন্স এন্ড ডেভেলপমেন্ট এর উদ্যোগে নগর পরিস্থিতি: নারায়ণগঞ্জের নগর শাসন পুনর্ভাবনা শীর্ষক গবেষণার আলোকে আয়োজিত গোলটেবিল বৈঠকে প্রধান অথিতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। আইভি বলেন, নারায়ণগঞ্জবাসী আমার পাশে ছিলেন, এখনও আছেন। তারা আছেন বলেই আমি এখনও বেঁচে আছি। তিনি বলেন কাঙ্খিত উন্নয়নের জন্য যে সাপোর্ট দরকার তা আমার নেই। দেশের অ™ভুত এই পরিস্থিতির মধ্যে থেকেও আমি আমার শহরবাসীকে সেবা দিয়ে যাচ্ছি। এজন্য আমি কেন্দ্রের উপর নির্ভরশীল না হয়ে যে লোকাল রিসোর্স আছে তাই দিয়ে যথাসম্ভব সেবা দিতে চাই। তিনি ফেনী, লক্ষীপুর ও যশোরের শার্শার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন আসুন পরিস্থিতি উত্তরণ করে নারায়ণগঞ্জকে মডেল হিসেবে ধরে সামনের দিকে এগিয়ে যাই। নগরের উন্নয়ন না হওয়ার জন্য রাজউককে দায়ী করে বলেন আমাদের জবাবদিহিতা আছে কিন্তু তাদের নেই। নারায়ণগঞ্জের বর্তমান পরিস্থিতির জন্য তিনি লেজুড়বৃত্তির রাজনীতিকে দায়ী করেন। আইভি বলেন নারায়ণগঞ্জের কাঙ্খিত উন্নয়নে অবৈধ জমি দখল, কেন্দ্রীয় নীতিমালা না থাকা, রাজউকের অযাচিত হস্তক্ষেপ এবং গডফাদারদের দৌরাত্ম্যই বাধা। তিনি বলেন গডফাদাররাই ঠিক করে দেন কে কাউন্সিলর হবে, এজন্য কাঙ্খিত মানের নেতৃত্ব পাওয়া যায় না। বিকালে ব্র্যাক সেন্টারে অনুষ্ঠিত ওই গোলটেবিল বৈঠকে বিআইডিজির নির্বাহী পরিচালক ড. সুলতান হাফিজ রহমানের সভাপতিত্বে গবেষণার উপর আলোকপাত করেন গবেষণা সমন্বয়কারী ড. ফেরদৌস জাহান, গবেষণার ফলাফল উপস্থাপন করেন বিআইডিজির গবেষণা সহযোগী মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম ও কাজী নিয়াজ আহমেদ। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন তত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ড. হোসেন জিল্লুর রহমান। এছাড়া বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সরকার বিশেষজ্ঞ ড. তোফায়েল আহমেদ, স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন প্রমুখ। ড. হোসেন জিল্লুর রহমান বলেন, নারায়ণগঞ্জের পরিস্থিতির পেছনে তীব্র রাজনৈতিক সংস্পর্শ, উন্নয়নের সঙ্গে বাসযোগ্যতা বিবেচনা না করা, জবাবদিহিতার পরিবর্তে আমলাতান্ত্রিক ধারাবাহিকতা, নগর কাউন্সিলরদের কাঙ্খিত মান না থাকা ও রাজনৈতিক অপরাধ প্রবণতা দায়ী। তিনি বলেন, অপরাধপ্রবণ রাজনৈতিক শাসনের জন্য আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীও কাজে আসে না। আর এই অপরাধপ্রবণ রাজনৈতিক শাসনের জন্য একনায়কতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থা দায়ী। তিনি বলেন এখন নাগরিক আন্দোলনের ওপর হুমকি আসছে। কেউ একজন বলছেন আমি নাগরিক আন্দোলনকে কঠিন করে দেব। কিন্তু আমরা কোন হুমকিতে ভয় পাই না।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close