কানাইঘাট উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা ও চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

কানাইঘাট প্রতিনিধিঃ কানাইঘাট উপজেলা আইনশৃঙ্খলা ও চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির মাসিক সভা গতকাল বুধবার সকাল ১১টায় পৃথক ভাবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও কমিটির সভাপতি তারেক মোহাম্মদ জাকারিয়ার সভাপতিত্বে তার কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। আইনশৃঙ্খলা ও চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি মাসিক সভার শুরুতে গত মাসের সভার কার্য বিবরণী পাঠ করে শুনান। পরে উপস্থিত সদস্যদের সর্ব সম্মতিতে পূর্ববর্তী সভার কার্যক্রমের অনুমোদন দেওয়া হয়। চোরা চালান প্রতিরোধ কমিটির সভায় বিজিবির দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুর রহিম সীমান্ত এলাকায় চোরাচালান প্রতিরোধে বিজিবির নেয়া বিভিন্ন পদক্ষেপ তুলে ধরে বলেন, বর্তমানে সীমান্ত এলাকায় বিজিবির সার্বক্ষণিক টহল জোরদার করার ফলে চোরাচালানী তৎপরতা আগের চাইতে কমে গেছে। তিনি গতমাসে বিজিবি কর্তৃক ভারতীয় সুপারীসহ ১৬ লক্ষ টাকার অবৈধ মালামাল উদ্ধার ও জড়িতদের বিরুদ্ধে চারটি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানান। কানাইঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল আউয়াল চৌধুরী জানান, উপজেলার সার্বিক আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। তিনি সম্প্রতি সুরাইঘাট সীমান্ত এলাকা থেকে পুলিশ কর্তৃক ৫০ বোতল ভারতীয় অফিসার্স চয়েজ মদসহ একজন গ্রেফতার এবং কয়েকদিন পূর্বে সোনাতনপুঞ্জি এলাকায় একজন তরুণীকে জংগলে আটকে রেখে ধর্ষণের ঘটনায় পৃথক দু’টি মামলা হয়েছে। এ নিয়ে এলাকায় যাতে কোন মহল আইন-শৃঙ্খলার বিঘœ ঘটাতে না পারে সে ব্যাপারে পুলিশ সদা তৎপর রয়েছে। তিনি আইন-শৃঙ্খলার উন্নয়ন ও চোরাচালান প্রতিরোধে সবাইকে সহযোগিতা করার আহবান জানান। লক্ষ্মীপ্রসাদ পশ্চিম ইউপির চেয়ারম্যান ফারুক চৌধুরী চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির সভায় বলেন, তার ইউনিয়নের সীমান্ত এলাকায় চিহ্নিত চোরাকারবারীরা তৎপর রয়েছে। চোরাকারবারীদের তথ্য সরবরাহ করায় অনেক সময় এলাকার নিরীহ লোকজনকে চোরাকারবারীরা মিথ্যা মামলা দিয়ে তাদের হয়রানী করে থাকে। তিনি সম্প্রতি সীমান্ত এলাকায় মাদক উদ্ধারসহ যে দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে তা ষড়যন্ত্রমূলক বলে দাবী করেন। তিনি আরো বলেন, চোরা চালান প্রতিরোধে সীমান্তের সুরাইঘাট-চতুল এবং লোভা পাথর কোয়ারীর রাস্তায় রাত ১২টার পর সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধের দাবী জানান। সাংবাদিক নিজাম উদ্দিন সীমান্ত এলাকায় চোরাচালান নির্মূল ও প্রতিরোধে চিহ্নিত চোরাকারবারীদের তালিকা তৈরি করে তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ এবং শক্তিশালী চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটি গঠন এবং মাদকের অপব্যবহার রোধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবী জানান। আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভায় পৌর মেয়র লুৎফুর রহমান বলেন, কানাইঘাট বাজারে চুরি রোধে শীঘ্রই নৈশ্য প্রহরীদের সংখ্যা বৃদ্ধি এবং বাজারে যে কোন ধরনের অসামাজিক কার্যকলাপ বন্ধ, যানজট নিরসন ও সৌন্দর্য বর্ধনের উদ্যোগ নেওয়া হবে।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close