ঝোপজঙ্গলে লাঘাটা নদীতে পানি নিস্কাশনে প্রতিবন্ধকতা

কমলগঞ্জে ঢলে তলিয়ে যাওয়া নিম্নাঞ্চলের অর্ধসহস্রাধিক বোরো চাষীর মাথায় হাত

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি : গত কয়েকদিনের ভারী বর্ষনে উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার নি¤œাঞ্চলে বোরো ফসল তলিয়ে গেছে। ঝোপজঙ্গলে ভরপুর থাকায় লাঘাটা নদী দিয়ে পানি নিস্কাশন না হওয়ায় জলাবদ্ধতায় ৯টি গ্রামের প্রায় অর্ধসহস্রাধিক কৃষকের ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয়েছে। ফলে ঋণগ্রস্ত কৃষকরা চরম হতাশায় পড়েছেন।
জানা যায়, বর্ষনের ফলে উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে কমলগঞ্জ উপজেলায় বন্যার সৃষ্টি হয়। বন্যার পানি নি¤œাঞ্চলের কেওলার হাওরে লাঘাটা নদী দিয়ে মনু নদীতে পানি নিস্কাশন হয়। তবে লাঘাটা নদীর পতনঊষার ও রাজনগর উপজেলার কামারচাক ইউনিয়নে ঝোপজঙ্গল ও গাছ-বাঁশ থাকায় নদী ভরাট হওয়ায় রীতিমতো পানি নিস্কাশন না হওয়ায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। জলাবদ্ধতায় পতনঊষার ইউনিয়নের ধূপাটিলা, শ্রীসূর্য্য, পতনউষার, জগন্নাথপুর, মুন্সীবাজার ইউনিয়নের রূপষপুর, বনবিষ্ণপুর, শমশেরনগর ইউনিয়নের কেছুলোটি ও সতিঝিরগ্রামের একাংশের বোরো ফসল সম্পূর্ণ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। নাম প্রকাশে অনচ্ছিুক কৃষি বিভাগের স্থানীয় মাঠ কর্মকর্তারা জানান, এসব গ্রামের প্রায় অর্ধ-সহস্রাধিক কৃষকের ১ হাজার হেক্টর জমির বোরো ফসল বিনষ্ট হয়েছে। পতনঊষার ইউনিয়নের কৃষক সিদ্দেক আলী, আব্দুল বারী, তোয়াবুর রহমান ও ফরিদ আহমদ বলেন, নি¤œাঞ্চল থাকায় তারা প্রত্যেকেই বোরো ধানের উপর নির্ভরশীল। কেওলার হাওরসহ আশপাশ এলাকায় প্রত্যেকেই ৫ থেকে ২০ কিয়ার পর্যন্ত জমি বোরো চাষাবাদ করেছেন। কেউ কেউ ঋণগ্রস্ত হয়েও বোরো আবাদ করেছেন। ফসল উৎপাদনের পর বিক্রি করে ঋণ পরিশোধ করার কথা। এখন জলাবদ্ধতায় বোরো ফসল সম্পূর্ণ ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ায় তারা চরম হতাশাগ্রস্থ হয়ে পড়েছেন। কৃষক ছিদ্দেক মিয়া বলেন, তারা প্রায় ৩০ জন কৃষক একটি বাড়ি একটি খামার থেকে মাথাপিছু দশ, পনেরো হাজার টাকা ঋণ নিয়েছেন বোরো উৎপাদন করে এগুলো পরিশোধ করার কথা। এছাড়াও দোকানবাকী ও মহাজনের ঋণে অনেকেই ঋণগ্রস্থ। কিন্তু এখন তাদের মাথায় হাত। কৃষি বিভাগের পতনঊষার ইউনিয়ন উপসহকারী কৃষিকর্মকর্তা গোপাল দেব বলেন, কেওলার হাওর এলাকার সম্পূর্ণ ফসল বিনষ্ট হয়েছে।
কমলগঞ্জ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ শামসুদ্দীন আহমদ বলেন, ক্ষতিগ্রস্থদের তালিকা প্রদান করা হয়েছে। কৃষি পুণ:বার্সন আসলে তাদের প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান করা হবে।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close