জকিগঞ্জে বিএসএফ স্পিডবোট দিয়ে ডুবিয়ে দিল নৌকা : ৪ দিন পর ভেসে ওঠলো কালামের লাশ

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

ডেস্ক রিপোর্টঃ সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলার বীরশ্রী ইউনিয়নের পশ্চিম জামডহর গ্রামের আবুল কালাম চৌধুরীর (৪৫) লাশ পানিতে পড়ে নিখোঁজের ৪ দিন পর ভেসে ওঠেছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে কুশিয়ারা নদীতে তার লাশটি ভেসে ওঠে। আবুল কালাম চৌধুরী ওই গ্রামের সখই মিয়ার ছেলে।
স্থানীয় সূত্র জানায়, সখের বশে গত শনিবার রাতে নৌকা নিয়ে উপজেলার পিয়াইপুর এলাকার কুশিয়ারা নদীতে মাছ ধরতে যান আবুল কালাম চৌধুরী। তার সাথে ছিলেন তজম্মুল চৌধুরী তজলু নামক আরেক ব্যক্তি। মাছ ধরার নেশায় বিভোর হয়ে তারা যৌথ নদীসীমা পেরিয়ে আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করে ভারতীয় অংশে চলে যান।
রাত সাড়ে ১১টার দিকে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বিএসএফের একটি টহল দল তাদের স্পিডবোট দিয়ে মাছ ধরার নৌকায় ধাক্কা দেয়। এতে নৌকা ডুবে যায়। সাথে থাকা তজম্মুল সাঁতরে তীরে ওঠতে সক্ষম হলেও পানিতে তলিয়ে যান আবুল কালাম চৌধুরী।
বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাবে স্থানীয় সোনাপুর বিজিবি ক্যাম্প, জকিগঞ্জ থানা পুলিশ ও সিলেট ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দলকে অবহিত করা হয়। রোববার দুপুরে বিজিবি-বিএসএফ উচ্চ পর্যায়ে আলোচনা হয়। এতে ভারতীয় অংশে ডুবুরি দলকে উদ্ধার অভিযান চালানোর অনুমতি দেয়া হয়। তবে ডুবুরি দল সন্ধ্যা পর্যন্ত চেষ্টা চালিয়েও আবুল কালামের লাশ উদ্ধার করতে পারেনি।
চার দিন পর, আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে কুশিয়ারা নদীতে ভেসে ওঠে আবুল কালামের লাশ। জকিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সফিকুর রহমান খান জানান, পুলিশ লাশ উদ্ধার করেছে। তবে নিহতের পরিবারের ইচ্ছায় ময়নাতদন্ত না করেই লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে।