ছাতক প্রেসক্লাবের অবৈধ কমিটির উপর আবারও নিষেধাজ্ঞা

ছাতক প্রতিনিদিঃ ছাতক প্রেসক্লাবের নামে হারুন-আলিমের নেতৃত্বাধীন অবৈধ কমিটির কার্যক্রমের উপর আবারো নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে আদালত। মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত এ নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে। ২৩অক্টোবর সুনামগঞ্জের বিজ্ঞ সিনিয়র সহকারি জজ নজরুল ইসলাম এ আদেশ দেন। জানাযায়, ২অক্টোবর ছাতক প্রেসক্লাবের সভাপতি আলহাজ্ব গিয়াস উদ্দিন তালুকদার বাদি হয়ে ছাতক প্রেসক্লাবের নামে গঠিত হারুন-আলিম নেতৃত্বাধীন অবৈধ কমিটির ১১সদস্যকে বিবাদী করে স্বত্ব মামলা নং-৫৩/২০১৪ দায়ের করলে আদালত প্রেসক্লাব নামে অবৈধ কমিটির উপর অন্তর্বর্তীকালীন নিষেধাজ্ঞার আদেশ দ্বারা বারিত করেন ও ৭দিনের মধ্যে কেন ছাতক প্রেসক্লাবের নামে তাদের গঠিত অবৈধ কমিটির উপর অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারি করা হইবেনা মর্মে কারন দর্শানোর নোটিশ প্রদান করেন। পরবর্তীতে বিবাদিগণ আদালতে কারন দর্শানোর নোটিশের জবাব দাখিল করলে এ বিষয়ে গত ১৪অক্টোবর শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। শুনানি শেষে বিজ্ঞ সিনিয়র সহকারি জজ অবৈধ কমিটির কার্যক্রমের উপর নিষেধাজ্ঞার আদেশ পুনর্বহাল রাখেন। এমতাবস্থায় বিবাদি হারুনুর রশিদ ও অন্যান্যরা উক্ত নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে আপত্তি দাখিল সাপেক্ষ পুনঃশুনানির আবেদন করলে গত ১৯অক্টোবর মামলা দীর্ঘ শুনানীর পর আদালত ২৩অক্টোবর মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত এ নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকার আদেশ প্রদান করেন। আদালতে বাদি পক্ষে শুনানিতে অংশ গ্রহন করেন, সিনিয়র এডভোকেট ড.মুফাচ্ছির মিয়া, এডভোকেট স্বপন কুমার দাস রায়, এডভোকেট বজলুর রশিদ, এডভোকেট শামছ উদ্দিন, এডভোকেট ফওয়াদুল জওয়াদ, এডভোকেট হেলাল উদ্দিন, এডভোকেট কামাল হোসেন, এডভোকেট নুরুল আলম প্রমুখ ও বিবাদি পক্ষে অংশ গ্রহন করেন, এডভোকেট আখতারুজ্জামান সেলিম প্রমুখ। প্রসঙ্গত, গত ২৬সেপ্টেম্বর ছাতক প্রেসক্লাবের নির্ধারিত সম্মেলনের মাধ্যমে ছাতক ডাক বাংলা রোডের রোকেয়া ম্যানশনস্থ কার্যালয়ে আলহাজ্ব গিয়াস উদ্দিন তালুকদারকে সভাপতি ও আনোয়ার হোসেন রনিকে সাধারণ সম্পাদক করে ছাতক প্রেসক্লাবের কার্যনির্বাহী কমিটি গঠন করা হয়। কিন্তু গত ২১সেপ্টেম্বর হারুনুর রশিদ ও আব্দুল আলিমের নেতৃত্বে তড়িগড়ি করে ছাতক প্রেসক্লাব নামে একটি অবৈধ কমিটি ঘোষনা করে জনসাধারণকে বিভ্রান্ত করার অপপ্রয়াস চালালে এর প্রেক্ষিতে ঐতিহ্যবাহী সংগঠন ছাতক প্রেসক্লাবের সভাপতি আলহাজ্ব গিয়াস উদ্দিন তালুকদার বাদি হয়ে মাননীয় সিনিয়র সহকারি জজ আদালত ছাতক, সুনামগঞ্জে স্বত্ত্ব মোকদ্দমা ৫৩/১৪ দায়ের করেন।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close