ফিলিস্তিনির ওপর ইসরাইলের আগ্রাসন বন্ধ করুন

জাতীয়তাবাদী মুক্তিযুদ্ধের প্রজন্ম’র মানববন্ধনে শমসের মুবিন চৌধুরী

বিএনপির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক পররাষ্ট্র সচিব শমসের মবিন চৌধুরী (বীরবিক্রম) বলেন,ফিলিস্তিনিরা আমাদের ভাই তাদের সাধারণ জীবন যাপন করার অধিকার রয়েছে। বিশ্বের অন্যান্য দেশের নাগরিকদের মত। তাই বিশ্বব্যাপীর কাছে আহবায়ন জানাই আপনারা সক্রিয় হন। ইসরাইলী আগ্রাসন বন্ধ করেন। সামরীক বাহিনী প্রত্যাহার করেন । আলাপ আলোচনার মাধ্যমে শান্তি পূর্ণ সমাধান খোঁজে বের করার উদ্যেগ নেন। তিনি আরো বলেন, সাবেক শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের নির্দেশে বাংলাদেশের সাহসী যুবকরা ফিলিস্তিনিদের সাথে কাঁদে কাদ মিলে যুদ্ধ করেছে। কিন্তু আজ এই ব্যাপারে আমাদের সরকার নিরব কেন? তারা বলছে গাজায় প্রতিনিধি দল পাঠাবে। কিন্তু তারা কি জানে না গাজায় প্রতিনিধি দল পাঠিয়ে কোন লাভ হবে না। তিনি চিকিৎসার জন্য ঔষদ সরবাহ এবং এই আগ্রাসন বন্ধের জন্য জাতিসংঘের কাছে আবেদন করার জন্য সরকারের প্রতি আহবায়ন জানান। গত শনিবার ইসরাইল কর্তৃক গাজায় ফিলিস্তিনি মুসলমানদের ওপর হামলা ও গণহত্যার প্রতিবাদে বিকাল ৪ টায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযুদ্ধের প্রজন্ম সিলেট মহানগর শাখার উদ্যোগে এক মানববন্ধন অনুষ্টানে তিনি এসব কথা বলেন। সাবেক পররাষ্ট্র সচিব বলেন ফিলিস্তিনি ভাই বোনদের চিকিৎসার জন্য আমি আগামী সোমবার আমার কিছু পরিচিত মানুষ নিয়ে ঢাকায় অবস্থিত রাষ্ট্র দূতের হাতে কিছু অনুধান দেব । তাই আপনারাও দল মত নির্বিশেষে ফিলিস্তিনি নিরহ আহত ব্যাক্তিদের পাশে দাঁড়ান এবং তাদের চিকিৎসার জন্য সিলেটবাসীকে এগিয়ে আসার আহবায়ন জানান । মাববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন জাতীয়তাবাদী মুক্তিযুদ্ধের প্রজন্ম সিলেট মহানগর শাখার আহবায়ক ইশতিয়াক আহমদ সিদ্দিকী এবং জাতীয়তাবাদী মুক্তিযুদ্ধের সদস্য সচিব রুহুল কুদ্দুস চৌধুরী হামজার সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ডা. শাহরীয়ার হোসেন চৌধুরী, মহানগর বিএনপির সাধারন সম্পাদক আব্দুল কাইয়ুম জালালী পংকি,ছাতক উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান চৌধুরী , সিলেট মহানগর বিএনপির যুগ্ন সম্পাদক আজমল বক্ত সাদেক, মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক রেজাউল হাসান কয়েস লোদী,
অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন,বিএনপি নেতা মাহবুব চৌধুরী,সৈয়দ রেজাউল করিম আলো,এডভোকেট আক্তার আহমদ জাহাঙ্গীর,আব্দুর রহিম,মহানগর ছাত্রদল নেতা রেজাউল করিম নাচন, কোহিনূর আহমদ,সৈয়দ এনায়ত হোসেন,এস.এ.রিপন,হরিদাস পাল শাওন,আব্দুল গফ্ফার,মতি মোহন,সিদ্বীপ কুমার বিশ্বাস। হানুর ইসলাম ইমন,আবু বক্কর বাবু,সুচিত্র চৌধুরী বাবলু,আব্দুল মালেক,জায়েদ তালুকদার,এখলাছুর রহমান মুন্না,সাবের আহমদ চৌধুরী,আলী আহমদ আলম, রেজুয়ান আহমদ, রশিদ আহমদ, আব্দুর রহমান সাইজুল,তুহিনুল ইসলাম তুহিন, সায়েম আহমদ চৌধুরী,মুর্শেদ আহমদ, মাসরুর রাসেল, আব্দুস সালাম,মুন্না আহমদ, আব্দুল করিম, রুস্তম আহমদ,সেয়দ সেলিম,নাবিল রাজা চৌধুরী,মুকিত তুহিন,আমির হামজা রাব্বি,মোহাইমিন রাহি মোঃ সাদিক হোমেন রাজু সাধন কুমার কর, মোঃজায়েদুর রহমান,জামিল আহমদ প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close