আবদুস সামাদ আজাদ ছিলেন জনমানুষের নেতা- শিক্ষামন্ত্রী

7c5ec527-5e18-476c-b13d-7401c538ead4স্টাফ রিপোর্টার :: শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, আবদুস সামাদ আজাদ একটি নাম, একটি ইতিহাস। সত্যিকার অর্থে তিনি ছিলেন জন-মানুষের নেতা। বিভিন্ন সময় দেশের দুর্যোগে-দুঃসময়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন মরহুম আবদুস সামাদ আজাদ।
মন্ত্রী বলেন, আবদুস মামাদ আজাদ ছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অত্যন্ত আস্থাভাজন। বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশের সফল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও জাতীয় এ নেতাকে খুব বেশি শ্রদ্ধা করতেন। তাঁর দিঙ্নির্দেশনা শুনতেন। আওয়ামী লীগে আবদুস মামাদ আজাদ ছিলেন একজন বটবৃক্ষ। মুজিবনগর সরকারের সময় খন্দকার মোশতাক যখন পরাষ্ট্রমন্ত্রী হয়ে পকিস্তানের পক্ষে কাজ করে, তখন আবদুস সামাদ আজাদ সারা বিশ্বে বাংলাদেশ ও মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে সমর্থন সৃষ্টি করেন। তিনি দেশের জন্য বিভিন্ন দেশে দেশে ঘুরে অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন। জাতীয় এ নেতা আওয়ামী লীগকে সুসংগঠিত রাখতে সব সময় তৃণমূল নেতাকর্মীদের সাথে যোগাযোগ রাখতেন। গভীর রাতে ফোন করে দীর্ঘ সময় পারিবারিক বিষয় আলোচনা করেই রাজনৈতিক আলাপচারিতা করতেন। আŸদুস সামাদ আজাদের মতো নেতা আজ দেশে মানুষের জন্য বড় প্রয়োজন।
আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী¡ আব্দুস সামাদের ১১তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল বুধবার বিকালে সিলেটে জেলা পরিষদ মিলনায়তনে আয়োজিত স্মরণসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
আব্দুস সামাদ আজাদ স্মৃতি সংসদ এ স্মরণ সভার আয়োজন করে। স্মৃতি সংসদের সভাপতি, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাবেক সিটি মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরানের সভাপতিত্বে ও স্মৃতি পরিষদের সদস্য সচিব, আওয়ামী লীগের জাতীয় পরিষদ সদস্য আ.ন.ম শফিকুল হকের পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মাসুক উদ্দিন আহমদ, সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী, অধ্যক্ষ সুজাত আলী রফিক, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালেক, জেলা জাসদের সাবেক সভাপতি কলন্দর আলী, আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট শাহ মশাহিদ আলী, ফয়জুর আনোয়ার আলাওর, বিজিত চৌধুরী, অধ্যাপক জাকির হোসেন, হুমায়ুন ইসলাম কামাল, সাংবাদিক আহমদ নূর, ইকরামুল কবির ইকু।
অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, বালাগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোস্তাকুর রহমান মফুর, এনাম আহমদ, সুব্রত পুরকায়স্থ, মো. সায়ফুল আলম রুহেল, অ্যাডভোকেট শামসুল ইসলাম, রনজিত সরকার, এজাজুল হক এজাজ, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল বাছিত, তপন পাল, ইশতিয়াক আহমদ চৌধুরী, আব্দাল মিয়া, আসমা কামরান, সুয়েব চৌধুরী, শামসুন নাহার মিনু, আজহার উদ্দিন জাহাঙ্গির, জালাল উদ্দিন কয়েছ, দেবাংশু দাস মিঠু, মুশফিক জায়গিরদার, শামিম রশিদ চৌধুরী, জালালাবাদ গ্যাস কর্মচারী লীগের সাধারন সম্পাদক শামসুল হক, কামরুল ইসলাম, সঞ্জয় চৌধুরী, সোহেল আহমদ প্রমুখ।
এদিকে, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক স্বাধীন বাংলার প্রথম পররাষ্ট্রমন্ত্রী, বৃহত্তম সিলেট বিভাগের অভিভাবক, আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মরহুম আব্দুস সামাদ আজাদের ১১তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে সুনামগঞ্জে মিলাদ মাহফিল ও স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
গতকাল বুধবার দুপুর ২টায় সুনামগঞ্জ জেলা ও সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট কমান্ডের যৌথ উদ্যোগে শহরের মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্রে মিলাদ মাহফিল ও স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
জেলা কামান্ডার নুরুল মোমেনের সভাপতিত্বে ও জেলা মুক্তিযোদ্ধা যুব কমান্ডের সভাপতি ওবায়দুর রহমান কুবাদের সঞ্চালনায় মিলাদ মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন জেলা ডেপুটি কমান্ডার মকছদ আলী, সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোঃ আব্দুল মজিদ, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের সভাপতি মোঃ আশরাফুল ইসলাম প্রমুখ। উপস্থিত নেতৃবৃন্দ মরহুমের রুহের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং দেশ ও জাতির সমৃদ্ধি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত কামনা করেন।
জগন্নাথপুর প্রতিনিধি জানান, আবদুস সামাদ আজাদের জন্মস্থান জগন্নাথপুরে মৃত্যুবার্ষিকী পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে গতকাল বুধবার উপজেলা আওয়ামীলীগ, অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের উদ্যোগে দুপুরে দলীয় কার্যালয়ে উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আকমল হোসেন এর সভাপতিত্বে ও উপজেলা আওয়ামীলীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সুজিত কুমার রায় এর পরিচালনায় আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সহ-সভাপতি সিদ্দিক আহমদ।
অন্যান্যোর মধ্যে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামীলীগ সহ-সভাপতি সিরাজুল হক, আব্দুল মালিক, আব্দুল কাইয়ুম মশাহিদ, উপজেলা আওয়ামীলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক ভাইস চেয়ারম্যান মুক্তাদীর আহমদ মুক্তা, সাংষ্কৃতিক সম্পাদক মুজিবুর রহমান মুজিব, সহ-দপ্তর সম্পাদক মাছুম আহমদ, সহ-প্রচার সম্পাদক ফিরোজ আলী, রানীগঞ্জ ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মজলুল হক, উপজেলা শ্রমিকলীগ সভাপতি নুরুল হক,উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা মশহুদ আহমদ, পৌর আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক হাজী ইকবাল হোসেন ভূঁইয়া, প্যানেল মেয়র সফিক মিয়া, শশী কান্ত গোপ, উপজেলা যুবলীগ সভাপতি কামাল উদ্দিন, সহ-সভাপতি এম ফজরুল ইসলাম, সেক্রেটারী আবুল হোসেন লালন,কলকলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ফখরুল ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান মাষ্টার, পাইলগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক আব্দুল তাহিদ, সৈয়দপুর শাহারপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক মনোয়ার আলী, যুবলীগ নেতা এডভোকেট জুয়েল মিয়া, ইব্রাহিম মিয়া, রমজান আলী ছানা,রনজু দাশ, সুজিত কুমার দে, নিজামুল করিম, তাজউদ্দিন তাজ, আব্দুস সামাদ আজাদ স্মৃতি সংসদের সাধারণ সম্পাদক ফজরুল হক জুয়েল, মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জিয়াউল হক, উপজেলা ছাত্রলীগের নেতা শাহ সাহেদ, রুমেন আহমদ, তোফাজ্জল হক সুমন, আব্দুল মুকিত,পৌর ছাত্রলীগ নেতা সজিব রায় দুর্জয়, তানভীর আহমদ, আবু জাহিদ প্রমুখ। সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রবীন রাজনীতিবিদ সিদ্দিক আহমদ বলেন, আব্দুস সামাদ আজাদের রাজনৈতিক শুন্যতা পূরন হবার নয়। তিনি আমাদের মধ্যে বেঁচে আছেন তার কর্ম ও আর্দশের কারণেই। আমরা তার নীতি আর্দশকে ধারন করে তাঁর স্মৃতিকে ধরে রাখতে কাজ করছি। আলোচনা সভায় পূর্বে বাদ জহুর উপজেলা সদর জামে মসজিদে মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
এছাড়া সামাদ আজাদ স্মৃতি পরিষদের উদ্যোগে আলোচনা সভা, মরহুমের প্রতিকৃতিতে পুস্প স্তবক অর্পন, বিভিন্ন মসজিদে মিলাদ মাহফিল ও মন্দিরে প্রার্থনার অনুষ্টিত হয়। এদিকে আব্দুস সামাজদের জন্মভিটা ভূরাখালি গ্রামে মিলাদ মাহফিল ও শিরনী বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়াও জগন্নাথপুর পৌরসভার উদ্যোগে মিলাদ, দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। পৌর মেয়র আলহাজ্ব আব্দুল মনাফের সভাপতিত্বে ও পৌর প্রকৌশলী সতীশ গোস্বামীর পরিচালনায় এতে বক্তব্য রাখেন, পৌর সচিব মোবারক হোসেন, প্যানেল মেয়র সফিকুল হক, পৌর কাউন্সিলর আবাব মিয়া, গিয়াস উদ্দিন মুন্না, দেলোয়ার হোসাঈন, উপজেলা আওয়ামীলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক জয়দ্বীপ সূত্রধর বীরেন্দ্র, স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি হাবিবুর রহমান পৌর স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা ছালিক আহমদ ডন, আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল কাদির প্রমুখ। এরপূর্বে মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্টিত হয়। দোয়া পরিচালনা করেন উপজেলা পরিষদ জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা বদরুল ইসলাম। এছাড়াও উপজেলা সদর জামে মসজিদে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল ও উপজেলা সদরের মন্দিরে বিশেষ প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়। সৈয়দপুর দরগা মসজিদ প্রাঙ্গনে মিলাদ মাহফিল ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। এতে অংশ নেন সাজাদ কুরেশী, জয়নুল কুরেশী,বদরুল,শেখ জুবায়ের, মিজান আহমদ, সাফাজ কুরেশী প্রমুখ।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close