সিলেটে বজ্রপাতে নিহত ৩, আহত ৪

1স্টাফ রিপোর্টার :: নগরীর ঘাসিটুলাসহ বিভাগের বিভিন্ন স্থানে বজ্রপাতে শিশু ও কৃষকসহ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন আরও ৪ জন। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক। গতকাল দুপুরে ঝড়োবৃষ্টির সময় বজ্রপাতে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।
গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে বজ্রপাতে সিলেট নগরীর ঘাসিটুলায় এক কিশোরীর মৃত্যু হয়েছে। তার নাম কলি বেগম ওরফে ময়না (১৪)। নগরীর ১০ নম্বর ওয়ার্ডের ঘাসিটুলার ইরানের কলোনির বাসিন্দা আজিজুল মিয়ার মেয়ে কলি বেগম মঙ্গলবার দুপুরে প্রতিবেশী শিউলির সাথে খেলা করছিল। দুপুর দেড়টার দিকে হঠাৎ বজ্রপাতের প্রকান্ড শব্দে দুজনই অজ্ঞান হয়ে পড়ে। কিছুক্ষণ পর শিউলির জ্ঞান ফিরলেও কলির জ্ঞান ফেরেনি। পরে তাকে ওসমানী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। কলিদের গ্রামের বাড়ি ময়মনসিংহের ফুলপুরে।
কোম্পানীগঞ্জ: মঙ্গলবার দুপুরে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ইছাকলস গ্রামে বজ্রপাতে আব্দুর রহমান (৩০) নামের এক কৃষকের মৃত্যু হয়। নিহত আব্দুর রহমান সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার বউলা গ্রামের মিছির আলীর ছেলে।
স্থানীয়রা জানান, ঘটনার সময় ইসাকলস ধুপড়ি হাওরে বোরো ধান কাটছিলেন আব্দর রহমান। এ সময় বৃষ্টিপাত ও ঝড় শুরু হলে বজ্রপাতে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান।
কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বায়েস আলম এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, মরদেহ নিহতের পরিবারের লোকজন নিয়ে গেছেন।
সুনামগঞ্জ: সুনামগঞ্জ পৌর শহরের মল্লিকপুর এলাকায় গতকাল মঙ্গলবার বজ্রপাতে তিনজন আহত হয়েছেন। গুরুতর আহত একজনকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
এলাকাবাসী জানান, মঙ্গলবার সকাল ১১টার দিকে সুনামগঞ্জ পৌর শহরের মল্লিকপুর এলাকার সুরমা নদীর আবদুজ জহুর সেতুর ওপর এই ঘটনা ঘটে। এ সময় আকস্মিক বজ্রপাতে সদর উপজেলার বড়ঘাট গ্রামের ময়জুল ইসলাম (৩৫), সদরগড় গ্রামের ময়নুল ইসলাম (১৪) ও মল্লিকপুর গ্রামের রেজাউল ইসলাম (৩৩) আহত হন। তাদের প্রথমে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হওয়ায় ময়জুল ইসলামকে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।
সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাইজার মোহাম্মদ ফারাবি বজ্রপাতের তিনজন আহত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
কুলাউড়া: কুলাউড়া উপজেলার হাকালুকি হাওর এলাকায় বজ্রপাতের ঘটনায় রশিদ আলী (৩৫) নামে এক জনের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে হাকালুকি হাওরে মাছ ধরতে গেলে ঘটনাটি ঘটে। রশিদ আলী উপজেলার জয়চন্ডী ইউনিয়নের মীরশংকর গ্রামের মৃত উস্তার আলীর ছেলে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সকাল ৯টায় বৃষ্টির সময় হাওর এলাকায় মাছ ধরতে গেলে বজ্রপাতের ঘটনা ঘটে। এসময় ঘটনাস্থলেই রশিদ আলীর মৃত্যু হয়। কুলাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close