সেন্টমার্টিনে শতাধিক পর্যটক আটকা

4স্টাফ রিপোর্টার :: সের্ন্টমাটিনে বেড়াতে আসা প্রায় শতাধিক পর্যটক দ্বীপে আটকা পড়েছেন। গতকাল শুক্রবার সকাল থেকে বৈরী আবহাওয়া ও ৩ নম্বর সর্তক সংকেত থাকায় টেকনাফ থেকে কোনো জাহাজ ছাড়েনি। ফলে এর আগের দিন সেন্টমার্টিনে বেড়াতে আসা রাত্রীযাপন করা পর্যটকরা সেখানে আটকা পড়েন।
কক্সবাজার আবহাওয়া অফিস জানায়, লঘুচাপের প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর, বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্রবন্দরের ওপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যাওয়ার আশঙ্কায় তিন নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।
পর্যটকবাহী জাহাজ কেয়ারি সিন্দাবাদের ব্যবস্থাপক মো. শাহ আলম জানান, সাগর উত্তাল ও ৩ নম্বর সর্তক সংকেত থাকায় শুক্রবার থেকে টেকনাফ-সের্ন্টমাটিন নৌরুটে জাহাজ চলাচল বন্ধ রয়েছে। সাগর স্বাভাবিক হয়ে গেলে আটকা পড়া পর্যটকদের ফিরিয়ে আনা হবে।
সেন্টমার্টিন দ্বীপ ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নব নিবার্চিত চেয়ারম্যান নুর আহমেদ জানান, গত বৃহস্পতিবার টেকনাফ-সের্ন্টমাটিন রুটে চলাচল পর্যটকবাহী জাহাজ ও ট্রলার করে প্রায় দেড় হাজারের বেশি পর্যটক সের্ন্টমাটিনে বেড়াতে আসেন। পরে একই দিন দুপুরে ওইসব জাহাজে করে প্রায় ১ হাজার ৩০০ পর্যটক টেকনাফে ফিরে আসলেও দ্বীপে শতাধিক পর্যটক রাত্রীযাপন করেন। তিনি আরো জানান, হঠাত্ করে শুক্রবার ভোররাত থেকে ঝড়ো হাওয়া শুরু হলে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌরুটে চলাচল জাহাজ বন্ধ হয়ে যায়। ফলে ওই সব পর্যটকরা সেন্টমার্টিনে আটকা পড়ে।
টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো.শফিউল আলম জানান, বৈরী আবহাওয়ার কারণে নৌরুটের সব জাহাজ চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। সেন্টমার্টিনে আটকা পড়া পর্যটকদের খোজঁ খবর নেয়া হয়েছে এবং তারা সেখানে সুস্থ ও ভাল রয়েছে। জাহাজ চলাচল স্বাভাবিক হলে তাদের ফিরিয়ে আনা হবে।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close