ফের ভ্রমণ সতর্কতা যুক্তরাষ্ট্রের

3131_f1ডেস্ক রিপোর্টঃ যুক্তরাষ্ট্র ফের তাদের নাগরিকদের জন্য ভ্রমণ সতর্কবার্তা দিয়েছে। ঢাকাস্থ মার্কিন দূতাবাসের তরফে বলা হয়েছে, তাদের কাছে নিশ্চিত খবর রয়েছে, এখানে বিদেশিদের ওপর আরও হামলা হতে পারে। ‘ম্যাসেজ ফর ইউএস সিটিজেন, ট্রাভেল এলার্ট ফর বাংলাদেশ’ শীর্ষক গতকাল জারি করা ওই বার্তার শুরুতে বলা হয়, বাংলাদেশে চলমান বিভিন্ন চরমপন্থি আক্রমণের বিষয়ে মার্কিন স্টেট ডিপার্টমেন্ট তাদের নাগরিকদের সতর্ক করছে। গত সেপ্টেম্বর থেকে বাংলাদেশে দুজন বিদেশি নাগরিককে গুলি করে হত্যাসহ ধর্মীয় সমপ্রদায় ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের ওপর বোমা ও উগ্রপন্থিদের আক্রমণের ঘটনা ঘটেছে। ইসলামিক স্টেট অব ইরাক অ্যান্ড দ্য লেভেন্ট- আইএস প্রকাশ্য ঘোষণা দিয়ে অনেক ঘটনার দায় স্বীকার করেছে। একই সঙ্গে ভারতীয় উপমহাদেশে আল কায়দার প্রতিনিধিত্বের দাবিদার কয়েকটি গোষ্ঠীও মার্কিন এক ব্লগার খুনসহ দেশের লেখক, প্রকাশক ও গণমাধ্যমকর্মীদের ওপর হামলা ও হুমকির দায় স্বীকার করেছে। ভ্রমণ সতর্কবার্তায়- বাংলাদেশ সরকারের উদ্যোগের বিষয়গুলোও তুলে ধরা হয়েছে। বলা হয়, চরমপন্থিদের ধরতে ও নিরাপত্তা বাড়াতে পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার। প্রতিবছর হাজার হাজার মার্কিন নাগরিক কোনো দুর্ঘটনা ছাড়াই বাংলাদেশ সফর করছেন। এরপরও মার্কিন নাগরিকদের উচিত পূর্ব সতর্কতা গ্রহণ করা, সতর্ক থাকা ও স্থানীয় নিরাপত্তা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে রাখা। ভ্রমণ সতর্কবার্তায়, মার্কিন কর্মকর্তা ও তাদের পরিবার এবং মার্কিন নাগরিকদের সর্বাবস্থায় সতর্কতা গ্রহণের আগের পরামর্শ বহাল রাখা হয়েছে। গত ১০ই নভেম্বরের পর বৃহস্পতিবার জারি করা নতুন বার্তায় ব্যাপক জনসমাগমের স্থানে যাওয়া, পায়ে হাঁটা, বাইসাইকেল, মোটর সাইক্ল রিকশা এবং খোলা যে কোনো পাবলিক বাহনে চড়তে বারণ করা হয়েছে। একই সঙ্গে যে কোনো বড় জমায়েত, সেটি হোক আন্তর্জাতিক কোনো হোটেলে আয়োজিত অনুষ্ঠান তা-ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তা ও নাগরিকদের এড়িয়ে চলতে বলা হয়েছে। সতর্কবার্তাটি আগামী পহেলা মে পর্যন্ত বহাল থাকবে বলে উল্লেখ রয়েছে।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close