একান্ত স্বাক্ষাৎকারে কমলগঞ্জের পৌরমেয়র জুয়েল ॥ জনগণকে সঙ্গে নিয়ে উন্নয়ন করতে চাই

Juail Picবিশ্বজিৎ রায়, কমলগঞ্জ প্রতিনিধি : জনগণকে সঙ্গে নিয়ে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ পৌরসভার উন্নয়ন করতে চাই। এজন্য সর্বস্তরের পৌর নাগরিকদের সহায়তা চেয়েছেন কমলগঞ্জ পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র, কমলগঞ্জ প্রেসকাবের সদস্য, সাপ্তাহিক কমলগঞ্জের কাগজ পত্রিকার প্রকাশক ও ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক, পৌর যুবলীগের সভাপতি মো. জুয়েল আহমেদ। তিনি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের মনোনয়ন নিয়ে বিপুল ভোটে মেয়র নির্বাচিত হন। কমলগঞ্জ পৌরসভার নব নির্বাচিত মেয়র মোঃ জুয়েল আহমেদ এর সাথে পৌরসভা কি ভাবে সাজাবেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত আধুনিক ডিজিটাল বাংলাদেশের রুপকার গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ও স্থানীয় সংসদ সদস্য, বালাদেশ জাতীয় সংসদের সাবেক চিফ হুইপ আলহাজ্ব উপাধ্যক্ষ মোঃ আব্দুস শহীদের আভিভাবকত্বে তিলোত্তমা কমলগঞ্জ পৌরসভা গঠনে কাজ করবো। তিনি পেশায় একজন ব্যবসায়ী। পিতার বাড়ী কমলগঞ্জ পৌর এলাকার কামারগাঁও গ্রামস্থ এক সম্ভ্রান্তÍ পরিবারে জন্ম গ্রহন করেন। ১৯৭৪ সালে ২রা ফেব্রুয়ারি তার জন্ম। লেখাপড়া করেছেন কমলগঞ্জেই।
রিটার্নিং অফিসারের কাছে মনোনয়নপত্রের সাথে জমা করা হলফনামা সূত্রে জানা যায়, আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনিত প্রার্থী মো. জুয়েল আহমদ মৌলভীবাজার ফৌজদারী আদালতে জিআর ৯১/৯৬ ও জিআর ১৫৫/৯৬ মামলার আসামী। তাছাড়া মূখ্য বিচারিক হাকিম আদালত মৌলভীবাজারে জিআর ১৬/২০১২ মামলার আসামী। তবে সরকারী নির্বাহী আদেশে জিআর ৯১/৯৬ ও জিআর ১৫৫/৯৬ মামলাটি নিষ্পত্তি হয়েছে। আর জিআর ১৬/ ২০১২ মামলার অভিযোগপত্রে জুয়েল আহমদকে অব্যাহতি প্রদান করা হয়। হলফনামায় নিজের শিক্ষাগত যোগ্যতার স্থানে স্ব-শিক্ষিত লিখেছে। পেশা হিসাবে উল্লেখ করেছে ব্যবসা। এর পাশাপাশি রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়েন। এ প্রতিনিধির কাছে দেয়া একান্ত সাক্ষাতকারে নব নির্বাচিত মেয়র জুয়েল আহমেদ বলেন, কমলগঞ্জ পৌরবাসীকে একটি পরিচ্ছন্ন পৌরসভা উপহার দিতে চাই। যার সব কিছু থাকবে পরিকল্পনা মাফিক সাজানো গোছানো। কাজগুলো হচ্ছে-নিরাপদ, আলোকিত, পরিছন্ন, পরিবেশ বান্ধব বাসযোগ্য আদর্শ পৌরনগরী হিসাবে কমলগঞ্জ পৌরসভাকে গড়ে তুলে শ্রেণী বৈষম্যের অবসান ঘঠিয়ে নাগরিক মর্যাদা ও অধিকার সুরক্ষায় মাধ্যমে আধুনিক পৌরসভা গঠন করবো। অন্যায়, অনিয়ম, দূর্নীতি, অনৈতিকতা ও রাজনৈতিক পেশীশক্তির কবল থেকে পৌরবাসীকে মুক্ত করে সুশাসন প্রতিষ্টার চেষ্টা করবো। জুয়েল আহমেদ আরো বলেন, পরিকল্পিত নগরী গড়ে তুলতে জনগণকে কর প্রদানে উদ্ধুদ্ধ করে এখাতে দূর্নীতি ও অব্যবস্থাপনা দুর করবো। পরিকল্পিত উপায়ে পৌর এলাকার স্তুুপিকৃত ময়লা-আর্বজনা অপসারণ করে জলাবদ্ধতা দুরীকরণ প্রয়োজনীয় স্থানে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ড্রেনেজ পদ্ধতির ব্যবস্থা এবং পরিবেশ সুরক্ষায় জনগুরুত্বপূর্ণ স্থানে পর্যাপ্ত গণশৌচাগার,পাবলিক টয়লেট সহ পৃথক ভাবে মহিলাদের জন্য টয়লেট স্থাপনের পরিকল্পনা গ্রহণ ও বাস্তবায়ন। সর্বত্র নিরাপদ বিশুদ্ধ পানীয়জলের সরবরাহের পাশাপাশি জন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে সহ পৌরসভার অন্তরগত সকল প্রাথমিক, মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক ও মাদ্রাসায় পর্যাপ্ত সংখ্যক নলকূপ স্থাপন, শিক্ষার গুণগত মান বৃদ্ধিতে নতুন নতুন গণমূখি কর্মসুচি গ্রহণের চেষ্টা করবো। নব নির্বাচিত মেয়র জুয়েল আহমেদ বলেন, বেকারত্ব দুরীকরণের জন্য কর্মসংস্থান ও কারিগরী প্রশিক্ষণ কর্মসুচী পৌর এলাকার নাগরিকদের সুবিধার্থে গ্যাস সরবরাহের দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনা গ্রহন। সর্ব্বোচ্চ নাগরিক সেবা নিশ্চিত করনে সকল সমস্যা চিহিুত করে তার সমাধান যাত্রায় সকল নাগরিকদের সাথে সমর্নিত কর্ম পরিকল্পনা গ্রহণ করবো। নাগকিদেরকে পরিচ্ছন্ন সেবা দিতে সচেষ্ট হবো। আমি পৌর পিতা নয় বরং নাগরিকদের বন্ধু ও সেবক হিসাবে কাজ করবো ও অবাধ তথ্য প্রবাহের নিশ্চিত করার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। পরিশেষে পৌরবাসী তাকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করায় সকলের প্রতি কৃতঞ্জতা প্রকাশ করেন।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close