শামীম ওসমানের জিহাদ ঘোষণা

Shamin Osmanডেস্ক রিপোর্টঃ জিহাদ ঘোষণা করেছেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের আলোচিত সংসদ সদস্য শামীম ওসমান। তিনি বলেছেন, ‘আমি মাদক, জঙ্গি, ভূমিদস্যু ও ইভটিজিংয়ের বিরুদ্ধে জিহাদ ঘোষণা করেছি। সে যে দলেরই হোক না কেন তাকে কোনো ছাড় নাই। অনেকে আমার পাশে দাঁড়িয়ে ছবি তুলে পোস্টার বানিয়ে আমার লোক হয়ে যায়। কাউকেই ছাড় নেই। আমিতো সবাইকে চিনিও না, আমাকে চিনিয়ে দেবেন। আমি নিজেই এর ব্যবস্থা নেবো। প্রশাসনকেও বলবেন। যদি প্রশাসন কিছু না করে তা হলে আমি করবো। আমি শামীম ওসমান একাই যথেষ্ট।’

তিনি যুবকদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘শামীম ভাই শামীম ভাই বলে চিৎকার করে লাভ নাই। বাবা-মার দোয়া নাও। বাবা-মায়ের দোয়া ছাড়া জীবনে উন্নত করা সম্ভব নয়। মাদক খাওয়া বা বেচা দুটোই অপরাধ। মাদক যারা খায় তারা সমাজের ক্যানসার। আর যারা বেচে তারা দেশের ও সমাজের শত্রু।’

শনিবার বিকেলে সিদ্ধিরগঞ্জের জালকুড়ি এলাকায় রাজউকের ৫০০ বিঘা জমি অধিগ্রহণের সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবিতে এক প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে শামীম ওসমান এ কথা বলেন।

মাদকের কুফল সম্পর্কে আলোচনা করে শামীম ওসমান নির্দেশ দেন, ‘প্রথমে শখ করে ইয়াবা খায়, পরে আসক্ত হয়ে পড়ে। মাদকের কুফলের কারণে ঐশি তার বাবা-মাকে হত্যা করে। তাই এলাকার সবাইকে মাদকের বিরুদ্ধে একসাথে কাজ করতে হবে। প্রয়োজনে গভীর রাতে আমাকে ফোন দেবেন এসএমএস দেবেন। আমি সবসময় আপনাদের ডাকে সাড়া দেবো।’

শামীম বলেন, ‘ভোট চাইতে আপনাদের কাছে আসতে পারি আর আপনাদের সমস্যায় আপনারা আমার কাছে যাবেন এটা হয় না। তাই আপনাদের সমস্যায় আমি ছুটে এসেছি আপনাদের কাছে।’

তিনি বলেন, ‘আগামী সিটি নির্বাচনে যদি ছোট বোন আইভি না থাকে তাহলে সিদ্ধিরগঞ্জে ব্যাপক উন্নতি করা সম্ভব হবে। কেননা সে কাজ করেও না, আবার করতে সহযোগিতাও করে না। সিটি মেয়র যদি আমার পছন্দের কেউ হয়, তাহলে সিদ্ধিরগঞ্জে ব্যাপক উন্নয়ন করা সম্ভব হবে।’

আন্দোলন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘৫০০ বিঘা জায়গা বাঁচানোর জন্য আন্দোলন করার দরকার নাই। আমি এমপি শামীম ওসমান থাকতে কেউ জায়গা নিতে পারবে না। তবে আধুনিক নগরায়ন হলে জমির দাম বাড়বে ১০ গুণ। সিদ্ধিরগঞ্জের এই এলাকাগুলোতে অপরিকল্পিত নগরী গড়ে উঠছে। সঠিক পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য রাজউকের প্রয়োজন আছে। যদিও সেটা হবে স্থানীয় জনগণের সাথে আলোচনার মাধ্যমে।’

প্রতিবাদ সভায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক ইয়াছিন মিয়া, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা যুবলীগের আহ্বায়ক মতিউর রহমান মতি, মজিবুর রহমান প্রধান, আব্দুস সামাদ বেপারী, ভূমি রক্ষা কমিটির যুগ্ম-আহ্বায়ক সামছুল আলম বাচ্চু, অ্যাডভোকেট শাহজাদা দেওয়ান, আলাউদ্দিন প্রধান, লোকমান হোসেন, সদস্য সচিব দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close