জীবনের সকল ক্ষেত্রে রাসুল (সা.) এর সুমহান আদর্শ প্রতিষ্ঠার অঙ্গীকার

01ডেস্ক রিপোর্টঃ পবিত্র ঈদে মীলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে গতকাল বৃহস্পতিবার সিলেট মহানগরীতে অনুষ্ঠিত হয়েছে বর্ণাঢ্য র‌্যালী। রাসূলপ্রেমে দরদমাখা সুরে নাত গেয়ে আর কালেমাখচিত ও কালজয়ী নানা কবিতার শ্লোক অঙ্কিত নজরকাড়া ব্যানার, দৃষ্টিনন্দন ফেস্টুন ও প্লেকার্ড হাতে র‌্যালীতে অংশ নেয় নানা বয়সের নানা পেশার হাজার হাজার মানুষ। বাংলাদেশ আন্জুমানে তালামীযে ইসলামিয়ার ঈদে মীলাদুন্নবী (সা.) র‌্যালী বাস্তবায়ন কমিটি সিলেট-এর উদ্যোগে বেলা ২টায় সোবহানীঘাটস্থ হযরত শাহজালাল দারুচ্ছুন্নাহ ইয়াকুবিয়া কামিল মাদরাসা প্রাঙ্গন থেকে র‌্যালী শুরু হয়ে সোবহানীঘাট, বন্দর বাজার, চৌহাট্টা, রিকাবীবাজার, বন্দরবাজার হয়ে আবার শাহজালাল দারুচ্ছুন্নাহ ইয়াকুবিয়া কামিল মাদরাসা প্রাঙ্গনে এসে শেষ হয়।
র‌্যালীতে নেতৃত্ব দেন উপমহাদেশের প্রখ্যাত আলেম আল্লামা আবদুল লতিফ চৌধুরী ফুলতলীর উত্তরসূরি আল্লামা মুফতী গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, অধ্যক্ষ মাওলানা কমরুদ্দীন চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সাবেক এমপি শফিকুর রহমান চৌধুরী, বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির সভাপতি এডভোকেট মাওলানা আব্দুর রকিব, আনজুমানে আল ইসলাহর মহাসচিব অধ্যক্ষ মাওলানা একেএম মনোওর আলী, যুগ্ম মহাসচিব সুপ্রিম কোর্ট জামে মসজিদের খতীব মাওলানা আহমদ হাসান চৌধুরী শাহান, তালামীযে ইসলামিয়ার কেন্দ্রীয় সভাপতি ফখরুল ইসলাম, আনজুমানে আল ইসলাহর কেন্দ্রীয় শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক মাওলানা নজমুল হুদা খান, সমাজকল্যাণ সম্পাদক মাওলানা মাহমুদ হাসান চৌধুরী, তালামীযে ইসলামিয়ার কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা হাসান চৌধুরী গিলমান ও সিলেট জেলা ব্যবসায়ী ঐক্যকল্যাণ পরিষদের সভাপতি আলহাজ্ব মখন মিয়া।
র‌্যালীতে অংশগ্রহণের জন্য সকাল থেকেই সিলেটের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে হযরত আল্লামা ফুলতলী ছাহেব কিবলাহ (র.)’র মুরীদীন, মুহিব্বীন, আন্্জুমানে আল ইসলাহ, তালামীযে ইসলামিয়া, লতিফিয়া কারী সোসাইটি, আনজুমানে মাদারিছে আরাবিয়া ও জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের নেতা-কর্মী ও সর্বস্তরের আশিকে রাসূল মুসলিম জনতা সোবহানীঘাটস্থ হাজী নওয়াব আলী জামে মসজিদে সমবেত হতে থাকেন।
র‌্যালীপূর্ব আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, হযরত মুহাম্মদ (সা.) বিশ্ব মানবতার মুক্তির দিশারী হিসেবে দুনিয়ার বুকে আবির্ভূত হয়েছিলেন। তিনি সারা সৃষ্টির জন্য আল্লাহর এক মহান নেয়ামত। তিনি পাপ-পঙ্কিলতায় ঘেরা, অজ্ঞতার অন্ধকারে নিমজ্জিত বিশ্বের মধ্যে অভূতপূর্ব পরিবর্তন সাধন করেছিলেন। গুমরাহীর ধ্বংসস্তুপের উপর সত্য ও ন্যায়ের সমাজ প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। পাপাচারে লিপ্ত বর্বর একটি জাতিকে পবিত্র আল কুরআনের আলোকে পরিচালনা করে সোনার মানুষে পরিণত করেছিলেন। তাঁর মহৎ জীবন ও সুমহান আদর্শ চিরন্তন ও চিরস্থায়ী। বক্তারা ব্যক্তি ও সমাজ জীবনের সকল ক্ষেত্রে রাসূলে পাক (সা.)-এর সেই সুমহান আদর্শ প্রতিষ্ঠার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন বক্তারা।
তালামীযে ইসলামিয়ার কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ও র‌্যালী বাস্তবায়ন কমিটির আহবায়ক মুহিবুর রহমানের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব হুমায়ূনুর রহমান লেখনের পরিচালনায় র‌্যালী পূর্ব সমাবেশে সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আল্লামা মুফতী গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী ছাহেবজাদায়ে ফুলতলী, বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির সভাপতি এডভোকেট মাওলানা আব্দুর রকিব, আনজুমানে আল ইসলাহর মহাসচিব অধ্যক্ষ মাওলানা একেএম মনোওর আলী, যুগ্ম মহাসচিব সুপ্রিম কোর্ট জামে মসজিদের খতীব মাওলানা আহমদ হাসান চৌধুরী, সাবেক যুগ্ম মহাসচিব অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুন নূর, তালামীযে ইসলামিয়ার কেন্দ্রীয় সভাপতি ফখরুল ইসলাম, আনজুমানে আল ইসলাহর কেন্দ্রীয় শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক মাওলানা নজমুল হুদা খান, সমাজকল্যাণ সম্পাদক মাওলানা মাহমুদ হাসান চৌধুরী, তালামীযে ইসলামিয়ার কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা হাসান চৌধুরী গিলমান, সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি মাওলানা শরীফ উদ্দিন, হাফিয নজীর আহমদ হেলাল, মাওলানা বেলাল আহমদ, আনজুমানে আল ইসলাহর সিলেট মহানগর সভাপতি আলহাজ শাহজাহান মিয়া, সাধারণ সম্পাদক আজির উদ্দিন পাশা, সাংগঠনিক সম্পাদক সম্পাদক মাওলানা আতাউর রহমান, নর্থইস্ট ইউনিভার্সিটির ইংরেজি বিভাগের লেকচারার নোমান আহমদ, তালামীযে ইসলামিয়ার কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শরীফ উদ্দিন, সহ প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক দুলাল আহমদ, অর্থ সম্পাদক রেদওয়ান আহমদ চৌধুরী ও অফিস সম্পাদক আক্তার হোসাইন জাহেদ প্রমুখ।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close