ছাত্রলীগের অস্ত্রধারীদের বিরুদ্ধে এ্যাকশনে যাচ্ছে পুলিশ

chhatroleageডেস্ক রিপোর্টঃ ক্ষমতাসীন দলের ছাত্র সংগঠন ছাত্রলীগের অস্ত্রবাজদের বিরুদ্ধে এ্যাকশনে যাচ্ছে পুলিশ। মঙ্গলবার জেলা ছাত্রলীগের মিছিলে প্রকাশ্যে অস্ত্রের মহড়া নগরীতে আতংক ছড়ায়। এঘটনার একদিন পর ‘অস্ত্রবাজদের’ বিরুদ্ধে এ্যাকশনে যাওয়ার কথা জানিয়েছেন সিলেট মহানগর পুলিশ কমিশনার (এসএমপি) মো. কামরুল আহসান। বুধবার রাতে তিনি গণমাধ্যমকে জানান, অস্ত্রধারীদের চিহিৃত করে পুলিশ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিচ্ছে। তবে মহানগর পুলিশের নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক উর্ধ্বতন আরেক কর্মকর্তা জানিয়েছেন অস্ত্রধারীদের ধরতে উপর মহলের নির্দেশনা রয়েছে। এদিকে প্রকাশ্যে অস্ত্রের মহড়া ছাত্রলীগকে বিব্রত করেছে ও সংগঠনের ইমেজে আঘাত এনেছে মন্তব্য করে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জাকির হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন, বিষয়টি ভালভাবে খোঁজ নিয়ে তাদের বিরুদ্ধে কেন্দ্র্র কমিটি এ্যাকশনে যাবে।
chhatroleage2উল্লেখ্য যে, সিলেট জেলা ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে ছাত্রশিবির, ছিনতাইকারী, ছাত্রদল, অছাত্র, ও বিবাহিতদের অনুপ্রবেশের অভিযোগ এনে সোমবার নগরীতে ঝাড়ু মিছিল করেন জেলা ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত নেতারা। মিছিল পরবর্তী সভায় অবিলম্বে ঘোষিত কমিটি বাতিল এবং জেলা সভাপতি শাহরিয়ার আলম সামাদ ও সাধারণ সম্পাদক এম. রায়হান চৌধুরীকে অবাঞ্চিত ঘোষনা করা হয়।
সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি এম নিজাম উদ্দিনের সভাপতিত্বে মিছিল পরবর্তী পথসভায় chhatroleage3বক্তারা বলেন-ছাত্রশিবির, ছিনতাইকারী, ছাত্রদল, অছাত্র, বিবাহিতদের দিয়ে বর্তমান জেলা ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়েছে। এর একদিন পর মঙ্গলবার জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে নবঘোষিত কমিটির নেতৃবৃন্দ হযরত শাহজালাল (রহঃ)’র মাজার জিয়ারত করেন। পরে মাজার এলাকা থেকেই বরে হয় মিছিল। মিছিলে ছাত্রলীগ নেতাদের হাতে ধারালো অস্ত্র দেখা যায়।
প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে, প্রকাশ্যে এমন অস্ত্রের মহড়া মাজারে আগন্তুক দর্শনার্থীসহ ব্যবসায়ীদের আতংকিত করে তোলে। এসময় অনেকে ভয়ে দোকানপাট বন্ধও করে দেন। নিরাপদ আশ্রয়ে ছুটতে দেখা যায় অনেককে।
জানা যায়, বুধবার বিকেলে মিছিল সহকারে শহীদ মিনারে গিয়ে পুষ্প অর্পন করে চটের ব্যাগ থেকে বের করা রামদা ছাত্রলীগের অন্তত ৪০জন নেতাকর্মীদের হাতে ছিল। এসময় অনেককে মোটর সাইকেলে বসে রামদা উচিয়ে মহড়া দিতে দেখা যায়।
কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ অনুমোদিত জেলা ছাত্রলীগের কমিটি বাতিলের দাবিতে রাজপথে ঝাড় মিছিল করে কেন্দ্রের নির্দেশের বিপক্ষে অবস্থান নিলেন কেন এমন প্রশ্নের জবাবে সিনিয়র সহ-সভাপতি এম নিজাম উদ্দিন গণমাধ্যমকে জানান, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কড়া নির্দেশ যাতে ছাত্রদল, ছাত্রশিবির এবং অছাত্র মুক্ত থাকে ছাত্রলীগ। কিন্তু সিলেট জেলা ছাত্রলীগে এ দুয়ের এমনকি ছিনতাইকারী, বিবাহিতদের ব্যক্তিদের অনুপ্রবেশ ঘটেছে। আমাদের আন্দোলন সংগঠনের বিরুদ্ধে নয়।
নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক আন্দোলনকারী একজন ছাত্রলীগ নেতা জানান, অনুপ্রবেশকারীদের বিরুদ্ধে আমরা শান্তিপূর্ণ মিছিল করেছি। যা নগরবাসী দেখেছেন। কিন্তু পদওয়ালা নেতারা রামধা হাতে নগর ঘুরেছেন। আমরা শিগগিরই উপযুক্ত প্রমানাধি ছাত্রলীগের কেন্দ্রেীয় নেতৃবৃন্দের কাছে পাঠাবো।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close