শীতকালীন টমেটো চাষে কমলগঞ্জের কৃষকের মুখে সবুজ হাসি

TOMATO CHAS-0 (40)বিশ্বজিৎ রায়, কমলগঞ্জ প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলায় উঠতে শুরু করেছে আগাম জাতের শীতকালীন হাইব্রিড টমেটো। বাজারে ব্যাপক চাহিদা থাকায় টমেটোর ভালো দাম পেয়ে খুশি কৃষকরা। বর্তমানে কমলগঞ্জ উপজেলাতে মণপ্রতি কাঁচা টমেটো দুইহাজার ২‘শ টাকা থেকে ২ হাজার ৬‘শ টাকা দরে পাইকারি বিক্রি হচ্ছে।
উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, সারাদেশে উৎপাদিত মোট শীতকালীন টমেটোর দুই তৃতীয়াংশই উৎপাদন হয় কমলগঞ্জ উপজেলাতে। চলতি মৌসুমে দুই হাজার ৫০০ হেক্টর জমিতে শীতকালীন হাইব্রিড জাতের টমেটোর চাষ হয়েছে।
TOMATO CHAS-0 (9)গত বছর প্রায় দুই হাজার হেক্টর জমিতে শীতকালীন টমেটোর চাষ হয়েছিল। কিন্তু গত ২টি মৌসুমে অস্থিতিশীল রাজনৈতিক পরিবেশের মধ্যে টানা হরতাল-অবরোধের মতো কর্মসূচির কারণে কৃষকরা টমেটো চাষ করে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছিলেন। তবে চলতি মৌসুমে দেশে রাজনৈতিক পরিবেশ সুস্থির থাকায় টমেটোর ভালো দাম পাচ্ছে কৃষকরা।
উপজেলার জামিরাকোনা গ্রমের টমেটো চাষী আব্দুর রউফ জানান, গত মাসের প্রথম দিকে জমি থেকে প্রথম টমেটো উঠতে শুরু করে। সে সময় মণপ্রতি কাঁচা টমেটো ২ হাজার টাকা দরে বিক্রি হয়েছিল। কিন্তু দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে টমেটোর পাইকার আসা শুরু করলে হঠাৎ করেই গত শুক্রবার থেকে টমেটোর দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। বর্তমানে মণপ্রতি কাঁচা টমেটো দুই হাজার ২‘শ টাকা থেকে ২ হাজার ৬‘শ টাকা দরে পাইকারি বিক্রি হচ্ছে।
tomato , Kamalgnj Picহীরামতি গ্রামের টমেটো চাষী শফিকুল ইসলাম জানান, প্রতি বিঘা জমিতে প্রায় ২০ হাজার টাকা খরচ করে তিনি তিন বিঘা জমিতে টমেটো চাষ করেছেন। গত সপ্তাহে তার তিন বিঘা জমি থেকে প্রথম দফায় সাড়ে তিন মণ টমেটো উঠেছে। প্রতি মণ ২ হাজার ৬‘শ টাকা দরে বিক্রি করেছেন। পরবর্তীতে আরো বেশি পরিমাণে টমেটো উঠবে। কিন্তু প্রথম দিকেই টমেটোর দাম দেখে হতাশায় ভুগছিলেন। কিন্তু হঠাৎ করে দাম বেড়ে যাওয়ায় খুশি এই কৃষক।
কুমড়াকাপন এলাকার কৃষক ওয়াহিদ মিয়া জানিয়েছেন, ‘প্রতি বছর জমি থেকে প্রথম টমেটো ওঠা শুরু হওয়ার পর থেকে দাম বেশি থাকলেও ক্রমান্নয়ে তা কমে আসে। কিন্তু এবারের চিত্রটা পুরোপুরি ভিন্ন। গত দুই মাস যাবৎ বাজারে কাঁচা টমেটোর দাম তেমন একটা কমেনি বেড়েছে।’ বাজার এখনও চাঙ্গা থাকায় এবার কৃষকরা অধিক লাভবান হবেন বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
kamalganj tomato -pic-1তিনি জানান, জমিতে এখনো টমেটো পাকেনি। কাঁচা টমেটো তুলেই পাইকারী বিক্রি করছেন কৃষকরা। আর পাইকারী ক্রেতারা কাঁচা টমেটো কিনে তা পাকিয়ে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে নিয়ে যাচ্ছেন। দেশের রাজনৈতিক অবস্থা ভাল থাকায় এবং বিভিন্ন জেলার পাইকাররা আসার কারণে এবার টমেটোর দাম বেশি পাচ্ছে কৃষকরা।
জানতে চাইলে হবিগঞ্জ ও সিলেট থেকে কমলগঞ্জে টমেটো কিনতে আসা মখলিচুর রহমান ও মনির উদ্দিন নামের দুই পাইকারী ক্রেতা বলেন, এবারের মৌসুমটাই খুব ভালো। প্রথমে ২ হাজার টাকা দরে কাঁচা টমেটো কিনে সেগুলো পাকিয়ে ঢাকায় বিক্রি করে ভালো লাভ হওয়ায় বেশি দামে টমেটো ক্রয় করছে তারা।
এ প্রসঙ্গে কমলগঞ্জ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা বলেন, ‘টমেটোর চাষ শুরুর আগে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর কৃষক, বীজ বিক্রয় প্রতিষ্ঠান ও সার-বীজ ব্যবসায়ীদের নিয়ে সমাবেশ করে। ভালো বীজ সরবরাহ ও চাষ পদ্ধতি সম্পর্কে অবহিত করা হয়। গোদাগাড়ী উপজেলায় সালামত, নসিব, ভিএল- ৬৪২- বিজলী, বঙ্গবীর, বিউটিসহ বিভিন্ন নামীয় টমেটোর চাষ হয়েছে। এইবার আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় টমেটোর গাছ ও ফুল ভালো রয়েছে। তবে কিছু কিছু টমেটোর গাছে নেবাটোড (পাতামোড়ানো) রোগ দেখা দিয়েছে।’ কৃষিবীদদের পরামর্শ অনুযায়ী অথবা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরে যোগাযোগ করে জমিতে বালাইনাশক ব্যবহারে জন্য চাষীদের জানিয়েছে।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close