স্যামসাং গ্যালাক্সি জে১ এবং কোর প্রাইম এখন পাওয়া যাচ্ছে আকর্ষণীয় নতুন মূল্যে

J1-C.Primeস্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশ তাদের জনপ্রিয় দুটি স্মার্টফোন স্যামসাং গ্যালাক্সি কোর প্রাইম এবং গ্যালাক্সি জে১ এ নতুন আকর্ষণীয় মূল্য ঘোষণা করেছে।
এখন স্যামসাং গ্যালাক্সি কোর প্রাইম এর নতুন মূল্য ১০,৯৯০ টাকা (পূর্বমূল্য ১২,৯৯০ টাকা) এবং গ্যালাক্সি জে১ এর নতুন মূল্য ৮,৯৯০ টাকা যার (পূর্বমূল্য ১০,৯৯০ টাকা)।
আকর্ষণীয় ডিজাইন, শক্তিশালী ফিচার এবং দীর্ঘমেয়াদী ব্যাটারির গ্যালাক্সি জে১ এবং গ্যালাক্সি কোর প্রাইম এর সাহায্যে গ্রাহকরা প্রিয়জনদের সাথে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রক্ষার পাশাপাশি স্মরণীয় মূহুর্তগুলো শেয়ার করতে পারবে আরও অভিনব উপায়ে।
এছাড়াও গ্যালাক্সি কোর প্রাইম দেশের হ্যান্ডসেট বাজারে উদ্ভোদনের পর থেকেই শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে। এই ফোনটিতে রয়েছে আকর্ষণীয় ডিজাইন ও উন্নত মাল্টিটাস্কিং সক্ষমতার চমৎকার সমতা।
ফোন দুটির নতুন মূল্য সম্পর্কে স্যামসাং বাংলাদেশ এর হেড অফ মোবাইল হাসান মেহদী বলেন,“দেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ক্রমবর্ধমান এবং আমরা সবার হাতে ইন্টারনেট পৌঁছে দিতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। এরই ধারাবাহিকতায় আমরা ক্রেতাদের হাতে আরও সাশ্রয়ী মূল্যে উন্নত মানের স্মার্টফোন তুলে দেয়ার জন্যই এই নতুন মূল্য নির্ধারন।”
থ্রিজি উপযোগী শক্তিশালী স্মার্টফোন দুটি ইতিমধ্যেই স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের মধ্যে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। গ্যালাক্সি জে১ এ রয়েছে ডব্লিউভিজিএ পিএলএস প্রযুক্তিসমৃদ্ধ ৪.৩ ইঞ্চি ডিস্পেø, অপরদিকে কোর প্রাইমে রয়েছে ৪.৫ ইঞ্চি এলসিডি ডিস্পেø। এছাড়াও দুটো স্মার্টফোনেই রয়েছে এলইডি ফ্যাশসহ ৫ মেগা পিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা এবং ২ মেগা-পিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা। ক্যামেরায় ছবি তোলার জন্য রয়েছে সেলফি ফিচার সহ উন্নত সব ক্যামেরা মোড।
বাজারে গ্যালাক্সি কোর প্রাইম পাওয়া যাচ্ছে ধূসর ও সাদা রঙে, মাত্র ১০,৯৯০ টাকা মূল্যে। আর গ্যালাক্সি জে১ পাওয়া যাচ্ছে সাদা, কালো এবং নীল রঙে মাত্র ৮,৯৯০ টাকা মূল্যে।
এই অফার সম্পর্কে আরো বিস্তারিত জানতে গ্রাহকরা কল করুন ০৯৬১২-৩০০-৩০০ নম্বরে অথবা ঘুরে আসুন নিকটস্থ স্যামসাং স্টোর থেকে।

স্যামসাং ইলেকট্রনিক্স কোঃ লিঃ
অভিনব এবং দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা ও প্রযুক্তির মাধ্যমে স্যামসাং ইলেকট্রনিক্স কোঃ লিঃ বিশ্ব পরিবর্তনের অঙ্গীকার নিয়ে টিভি, স্মার্টফোন, পরিধানযোগ্য ডিভাইস, ট্যাবলেট, ক্যামেরা, ডিজিটাল অ্যাপ্লায়েন্স, প্রিন্টার, মেডিকেল সরঞ্জাম, নেটওয়ার্ক সিস্টেম, সেমিকন্ডাকটর এবং এলইডি সলিউশনে যুগান্তকারী সমাধান প্রদান করছে। স্মার্ট হোম এবংডিজিটাল হেলথ ইনিশিয়েটিভ এর মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানটি “ইন্টারনেট অফ থিংস” এ অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে। প্রতিষ্ঠানটিতে বিশ্বজুড়ে ৮৪টি দেশে ৩০৭,০০০ জন কর্মী কাজ করে এবং বাৎসরিক আয় ১৯৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close