সিলেটের আদালতে রাগীবনগর অবৈধ ঘোষণা : শোকরানা ও আনন্দ উৎসব করলো তালিবপুরবাসী

ragib-aliআদালত রাগীবনগরকে অবৈধ ঘোষনা করায় সিলেটের দক্ষিণ সুরমা-বিশ্বনাথের কামালবাজার এলাকার তালিবপুর এলাকাবাসী শোকরানা ও আনন্দ উৎসব করেছে। বৃহত্তর তালিবপুর নাম ঐতিহ্য রক্ষা পরিষদের উদ্যোগে ১২ আগস্ট শনিবার উপজেলার কামালবাজারস্থ ওয়াদুদ-আক্তার কিন্ডারগার্টেন স্কুল মাঠে এক শুকরানা ও আনন্দ উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। অযাচিত নাম পরিবর্তনের অবাঞ্চিত ঘোষণায় দীর্ঘ প্রায় বার বছর আন্দোলন সংগ্রাম আর প্রতিপক্ষের ন্যাক্কারজনক মিথ্যা মামলা, হামলা, অভিযোগ ও অব্যাহত উৎপাতের পর সম্প্রতি সিলেটের আদালত তালিবপুরকে রাগীবনগর হিসেবে ব্যবহার অবৈধ ঘোষণা করেন।
পরিষদের আহবায়ক কবি লায়েক আহমেদ নোমানের সভাপতিত্বে ও হাফিজ আনোয়ার আলীর পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন বিশ্বনাথ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ওয়াহিদ আলী, অলংকারী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি লোকমান হোসেন, তালিবপুর জামে মসজিদের মোতাওয়াল্লী আলহাজ্ব আব্দুল্লাহ, নবাগ নাম ঐতিহ্য রক্ষা পরিষদের যুগ্ম আহবায়ক রফিক আলী চৌধুরী, খাজাঞ্চি ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক মেম্বার আব্দুল আমীর, পরিষদের সদস্য সচিব শিক্ষক শাহ ওয়ায়েছ মিয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুক মিয়া, আওয়ামী লীগ নেতা শাহ আজমল ইসলাম রাজন, কবিরাজ মাসুক মিয়া, যুবলীগ নেতা রিয়াজ উদ্দিন, যুবদল নেতা সোহেল আহমদ, সাবেক মেম্বার তসির আলী, সোনাহর আলী তালুকদার, হাজী গেদা মিয়া, মকবুল আলী, ইসলাম আলী, আবু সাঈদ, রুস্তুম আলী, বাবুল মিয়া প্রমুখ।
সভায় বক্তারা মামলার রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, আইনমন্ত্রী, সচিবগন, আইজিপি, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রধানগণ, গোয়েন্দা সংস্থা সমুহের মহা পরিচালক, সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার, ডিআইজি সিলেট রেঞ্জ, সিলেটের পিপি মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, সাবেক এমপি শফিকুর রহমান চৌধুরী, জেলা প্রশাসকসহ সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা হয়। এ ছাড়া ১২ বছর আন্দোলন সংগ্রাম চলাকালে এলাকার যারা মারা গেছেন তাদের স্মরণে শোক প্রস্তাব করা হয়।
সভায় বক্তারা বলেন, মিথ্যা মামলা-হামলা আর ডিগবাজি করে কখনো সত্যকে মিথ্যা দিয়ে ঢেকে রাখা যায় না। তাই আজ মিথ্যাকে পেছনে ফেলে সত্যের বিজয় নিশ্চিত হয়েছে। সত্যের উপর যারা স্টীমরোলার চালায় তারা সমাজের সকল শ্রেণী পেশা মানুষের কাছে ঘৃনিত ব্যক্তি হিসেবে পরিচিত হয়। বক্তারা সত্যের প্রকাশে সাহসী ভূমিকা পালন করায় ইলেক্ট্রনিক্স ও প্রিন্ট মিডিয়া, জাতীয়-স্থানীয় পত্রিকার মালিক, প্রকাশক সহ সম্পাদকবৃন্দদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন। শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন জালাল উদ্দিন। অনুষ্ঠানের শেষে মিষ্টি বিতরণ করা হয়। -বিজ্ঞপ্তি

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close