মৌলভীবাজার এনডিএফ’র সভা – গ্যাস-বিদ্যুৎ-সিএনজির মূল্য কমানোর দাবি

গ্যাস-বিদ্যুৎ-জ্বালানি তেলের মূল্য কমানোর দাবিতে জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট-এনডিএফ’র দেশব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসেবে ৯ সেপ্টেম্বর বুধবার সন্ধ্যায় সংগঠনের চৌমুহনাস্থ জেলা কার্যালয়ে এক সভা অনুষ্টিত হয়।
জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট-এনডিএফ মৌলভীবাজার জেলা শাখার অন্যতম নেতা কবি শহীদ সাগ্নিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তারা গ্যাস-বিদ্যুৎ-সিএনজি’র মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন সাম্রাজ্যবাদ ও তার দালালদের লুটপাটের স্বার্থে জাতীয় ও জনস্বার্থ উপেক্ষা করে গ্যাস ও বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধি করা হয়েছে। বিদ্যুৎ উৎপাদনের প্রধান উপকরণ জ্বালানী তেলের দাম যখন বিশ্ববাজারে রেকর্ড পরিমান নেমে ৪০ ডলারে নেমে এসে দরপতন অব্যাহত আছে তখন সরকারের এই সিদ্ধান্ত শুধু অযৌক্তিকই না বরং জ্বালানি তেলেন পাশাপাশি বিদ্যুতের মূল্য কমানো উচিৎ ছিল। সরকার সাম্রাজ্যবাদী সংস্থা বিশ্বব্যাংক, আইএমএফ, এডিবির নীতিনির্দেশে জাতীয় ও জনস্বার্থ উপেক্ষা করে অবাধ লুটপাটের স্বার্থে গ্যাস ও বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধি করেছে। পিয়াজ, কাঁচামরিচ, সবজিসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের লাগামহীন উর্দ্ধগতিতে জর্জরিত জনগণের উপর গ্যাস-বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির প্রভাবে জনজীবনের সংকটকে আরও তীব্র করবে। বক্তারা দেশের বর্তমান বন্যা পরিস্থিতিতে সরকারের নির্লিপ্ততার সমালোচনা করে বন্যার্তদের উপযুক্ত ত্রাণ, সার ও বীজ সরবরাহ করার দাবি জানান। সভায় বক্তব্য রাখেন এনডিএফ জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক রজত বিশ্বাস, ধ্রবতারা সাংস্কৃতিক সংসদ মৌলভীবাজার জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক অমলেশ শর্ম্মা, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ মৌলভীবাজার জেলা কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক সোহেল আহমেদ, কমলগঞ্জ এনডিএফ’র যুগ্ম-আহবায়ক মৃগেন চক্রবর্তী, হোটেল শ্রমিক ইউনিয়ন সদর উপজেলা কমিটির সভাপতি তারেশ বিশ্বাস সুমন, রিকশা শ্রমিক সংঘের সাংগঠনিক সম্পাদক কিসমত মিয়া, সুজন মিয়া, মাসুক মিয়া, মোঃ জসিমউদ্দিন, মোবারক হোসেন। বক্তারা আরও বলেন গ্যাস-বিদ্যুৎ-সিএনজি’র মূল্য বৃদ্ধি এবং পে-স্কেল কার্যকরের ফলে সকল নিত্যপণ্যের মূল্য আরেক দফা বৃদ্ধি করবে। অন্যদিকে গ্যাস ও সিএনজি’র মূল্য বৃদ্ধি বাড়িভাড়া গাড়িভাড়া বৃদ্ধি করে শহরবাসী মধ্যবিত্তের জীবনযাপনকে দুর্বিষহ করে তুলবে। দেশীয় উৎপাদিত গ্যাস থেকে সরকার লাভজনক অবস্থায় থাকা সত্ত্বেও সরকারের গ্যাস ও সিএনজি’র মূল্য বৃদ্ধি সিদ্ধান্ত প্রমাণ করেছে সরকার জনজীবনের সংকটকে তোয়াক্কা করছে না। তাই আজ প্রয়োজন সকল গণতান্ত্রিক শক্তি ঐক্যবদ্ধ হয়ে এনডিএফ ঘোষিত ১৩ দফা দাবিতে ঐক্যবদ্ধ হয়ে সরকারের জাতীয় ও জনস্বার্থ বিরোধী কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে আন্দোলন সংগ্রাম গড়ে তুলে সাম্রাজ্যবাদ সামন্তবাদ বিরোধী জাতীয় গণতান্ত্রিক সমাজ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে অগ্রসর হওয়া।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close