অচিরেই আরো ৪০,০০০ পুলিশ নিয়োগ : প্রধানমন্ত্রী

Hasina with poloceসুরমা টাইমস ডেস্কঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, তার সরকার অচিরেই আরো ৪০,০০০ পুলিশ সদস্য নিয়োগ দিবে।
তিনি বৃহস্পতিবার রাজশাহীর সারদায় বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমিতে ৩৩তম বিসিএস (পুলিশ) ক্যাডারের শিক্ষানবিশ সহকারী পুলিশ সুপারদের শিক্ষা সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে একথা বলেন।
শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশ পুলিশে ৫০,০০০ নতুন পদ সৃষ্টির সিদ্ধান্ত নিয়েছি। ইতোমধ্যে ১০,০০০ পুলিশ সদস্য নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। বাকি ৪০,০০০ জনবল নিয়োগ অচিরেই সম্পন্ন করা হবে।’
তিনি বলেন, ‘আমরা যখনই সরকার গঠন করেছি, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আধুনিকায়নে গুরুত্ব দিয়েছি। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর উন্নয়নে কাজ করেছি।’
প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের লক্ষ্য একবিংশ শতাব্দীর চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় একটি যুগোপযোগী আধুনিক পুলিশ বাহিনী গড়ে তোলা। এজন্য আমরা বিভিন্ন বাস্তবমুখী ও জনবান্ধব কর্মসূচি গ্রহণ করেছি। পুলিশের সাংগঠনিক কাঠামোতে ৭৩৩টি ক্যাডার পদসহ ৩২,০৩১টি পদ সৃষ্টি করা হয়েছে। তারপরও দেশের জনসংখ্যার অনুপাতে পুলিশের জনবল যথেষ্ট নয়।’
তিনি বলেন, ‘রংপুর ও গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ গঠনের কাজ শেষ পর্যায়ে রয়েছে। বর্ধিত জনবলের সঙ্গে প্রয়োজনীয় যানবাহন ও অন্যান্য সরঞ্জামাদি সরবরাহের বিষয়টি বিবেচনায় রয়েছে।’
প্রশিক্ষণ সম্পন্নকারী নবীন কর্মকর্তাদের অভিনন্দন জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এখানে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে পেশাগত জ্ঞান ও শৃঙ্খলার প্রতি যে আনুগত্যবোধ আপনারা অর্জন করেছেন, তা জনগণের শান্তি ও নিরাপত্তা রক্ষায় কাজে লাগাবেন- এটাই আমাদের প্রত্যাশা।’
বক্তৃতায় তিনি গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, মুক্তিযুদ্ধে ৩০ লাখ শহীদ, জাতীয় চার নেতাকে স্মরণ করেন। সেই সঙ্গে সমবেদনা জানান মুক্তিযুদ্ধে নির্যাতিত মা-বোন ও অগণিত যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধার প্রতি।
মুক্তিযুদ্ধে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর গৌরবোজ্জ্বল ভূমিকা স্মরণ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ ও যুদ্ধপরবর্তী সময়ে পুলিশ বাহিনীর অবদান অনস্বীকার্য। ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ কালরাতে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী সর্বপ্রথম আক্রমণ চালায় রাজারবাগ পুলিশ লাইনসে। এ সময় পুলিশের বীর সদস্যরা সামান্য ৩০৩ রাইফেল নিয়ে স্বাধীনতার প্রথম প্রহরে সশস্ত্র প্রতিরোধ গড়ে তোলেন।’
সারদার পুলিশ একাডেমির প্রশংসা করে তিনি বলেন, ‘হোম অব পুলিশ’ খ্যাত এই একাডেমিকেও আমরা ঢেলে সাজিয়েছি। নবনিযুক্ত সহকারী পুলিশ সুপারদের মৌলিক প্রশিক্ষণের পাশাপাশি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে Master of Police Science ডিগ্রি প্রদান করা হচ্ছে।
তিনি বলেন, সাইবার ক্রাইম, মানিলন্ডারিং, আন্তর্জাতিক ও আঞ্চলিক জঙ্গিবাদ এবং সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড প্রতিরোধে পুলিশের পৃথক বিশেষায়িত ইউনিট গঠনের কাজ এগিয়ে চলছে। এ লক্ষ্যে পুলিশ বাহিনীকে আমরা উন্নত প্রশিক্ষণও দিচ্ছি। এ জন্য তথ্য-প্রযুক্তির প্রয়োগের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিচ্ছি।
এর আগে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় প্রধানমন্ত্রী বিমান বাহিনীর একটি বিশেষ হেলিকপ্টারে রাজশাহীর চারঘাট উপজেলার সারদায় বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমিতে পৌঁছান।
সেখান থেকে প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমির নবনির্মিত অতিথি ভবন ‘তরুণিমা’ এবং প্যারেড গ্রাউন্ডের নবনির্মিত গ্যালারির উদ্বোধন করেন।
পরে ৩৩তম বিসিএস ব্যাচের শিক্ষানবিশ সহকারী পুলিশ সুপারদের প্রশিক্ষণ সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে তাদের অভিবাদন গ্রহণ করেন।
প্যারেড পরিদর্শন শেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিভিন্ন বিষয়ে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনকারী শিক্ষানবিশ সহকারী পুলিশ সুপারদের মধ্যে পদক বিতরণ করেন।
বিকেলে ঢাকার উদ্দেশে রওয়ানা দেওয়ার আগে প্রধানমন্ত্রী পদ্মানদীর তীরে নবনির্মিত অতিথি ভবন ‘ঊর্মি’ উদ্বোধন করবেন।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close