মুজিবুর রহমান’র বিরুদ্ধে করা মামলা ডিবি দিয়ে তদন্ত করানো হবে

সিলেট জেলা প্রেসকাব নেতৃবৃন্দকে পুলিশ কমিশনারের আশ্বাস

SMP With Sabuj Sylhetসুরমা টাইমস ডেস্কঃ দৈনিক সবুজ সিলেট’র সম্পাদক মুজিবুর রহমানের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) দিয়ে তদন্ত করানোর আশ্বাস দিয়েছেন এসএমপি পুলিশ কমিশনার কামরুল আহসান। সম্পাদক মুজিবুর রহমানের বিরুদ্ধে মামলা হলেও পুলিশ তাকে হয়রানী করবেনা বলে জানান তিনি। গতকাল রোববার দুপুরে সিলেট জেলা প্রেসকাব নেতৃবৃন্দের সাথে সৌজন্য সাক্ষাতকালে এ আশ্বাস দেন পুলিশ কমিশনার।
প্রেসকাব নেতৃবৃন্দ বলেন, পুলিশ ও সাংবাদিকের কর্মপন্থা মানুষের সেবা করা। এ ক্ষেত্রে নানা কারণে সাংবাদিকরা সমাজে প্রতিহিংসার শিকার হন। পুলিশ প্রশাসনের উচিত তা ভালভাবে খতিয়ে দেখা, যে অভিযোগ সঠিক কিনা। কিংবা এ ধরণের কোনো অভিযোগ থাকলে মামলা নেওয়ার আগে তা প্রেস কমিউনিটিকে জানানো এবং সুষ্ট তদন্ত সাপেক্ষে অভিযোগ গ্রহন করা।
জবাবে পুলিশ কমিশনার বলেন, আমরা সব সময় সাংবাদিকদের সাথে সহযোগীতা সুলভ আচরণ করে আসছি। সিলেটের পুলিশ প্রশাসনের সাথে সাংবাদিকদের সুসম্পর্ক রয়েছে, তা অব্যাহত থাকবে। এছাড়া শাহপরান থানার ওসির বিরুদ্ধে পক্ষপাতের অভিযোগ ওঠায় এই মামলাটি আগামী কালের মধ্যেই মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ দিয়ে তদন্ত করানো হবে এবং অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণিত হলে মামলার চুড়ান্ত প্রতিবেদন দেওয়া হবে বলে নেতৃবৃন্দকে আশ্বাস দেন পুলিশ কমিশনার।
পুলিশ কমিশনারের জ্ঞাতার্থে দৈনিক সবুজ সিলেট’র সম্পাদক মুজিবুর রহমান বলেন- যে জমির ধান কাটার অভিযোগ করা হয়েছে ওই জমিটি তার নয়, এমনকি যে লোককে আটক করা হয়েছে সেই লোকটিকেও তিনি চেনেন না। অথচ ধান কাটার মামলায় তাকে প্রধান আসামি করা হয়েছে। আর হাতেনাতে আটক লোকটির নাম এজাহারে নেই।
তিনি বলেন, কিছুদিন আগে তার মালিকানা একটি জায়গায় স্থাপিত ঘর ভাঙচুর করে। হামলাকারী সন্ত্রাসীরা সে ঘরে অবস্থানকারী লোকদের মারধর করে তাড়িয়ে দেওয়ার কারণে তিনি মামলা দায়ের করেছিলেন। এ জন্য একটি পক্ষ তার বিরুদ্ধে প্রতিহিংসা পরায়ন হয়ে মিথ্যা অভিযোগে মামলা দায়ের করেছে। এক্ষেত্রে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার অতি উৎসাহি ভ’মিকাকে দায়ি করেন তিনি বলেন, এর প্রেক্ষিতে তাকে এ মামলায় আসামি করা হয়েছে। অথচ তার বিরুদ্ধে গত ১০ বছরের মধ্যে সিলেটের কোনো থানায় একটি সাধারণ ডায়েরীও নেই।
সৌজন্য সাক্ষাতকালে পুলিশের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার এসএম রুকন উদ্দিন, উপ পুলিশ কমিশনার (সদর) আকরাম হোসেন, অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার (মিডিয়া) রহমত উল্লাহ। সাংবাদিক নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সিলেট জেলা প্রেসকাবের সভাপতি ও বাংলাদেশ টেলিভিশনের সিলেট প্রতিনিধি আজিজ আহমদ সেলিম, সিনিয়র সাংবাদিক ও দৈনিক জনকন্ঠের ব্যুরো প্রধান সালাম মশরুর, সিলেট প্রেসকাব ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনের ব্যুরো প্রধান আল আজাদ, সিনিয়র সাংবাদিক ও মানবজমিনের বিশেষ প্রতিনিধি চৌধুরী মুমতাজ আহমদ, সিলেট জেলা প্রেসকাবের উপদেষ্টা ও দৈনিক সবুজ সিলেট এর সম্পাদক মুজিবুর রহমান, সিলেট জেলা প্রেসকাবের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক সাত্তার আজাদ, সহ সভাপতি ফখরুল ইসলাম, সিনিয়র সাংবাদিক ও দৈনিক নিউ এজ’র নিজস্ব প্রতিবেদক ও জেলা প্রেসকাবের সদস্য মনিরুজ্জামান মনির, মানবকন্ঠের ব্যুরো প্রধান মনোয়ার জাহান চৌধুরী, বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম’র স্টাফ করেসপন্ডেন্ট ও জেলা প্রেসকাবের সদস্য নাসির উদ্দিন, রিয়েল টাইমস টোয়েন্টিফো.কম’র স্টাফ ফটোসাংবাদিক সৈয়দ সুজন আহমদ, দৈনিক শ্যামল সিলেট’র ফটো সাংবাদিক মুহিদ হোসেন, দৈনিক সবুজ সিলেট’র ফটো সাংবাদিক ইদ্রিছ আলী।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close