বৃটিশ আমলে শোষন করার জন্য তৈরি আইন গণতান্ত্রিক দেশে উপযোগী নয় : কমলগঞ্জে প্রধান বিচারপতি

moulvibazar 6 faমশাহিদ আহমদ, মৌলভীবাজারঃ প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিন্হা বলেছেন- বৃটিশ আমলে শোষন করার জন্য যে আইনগুলো চালু করা হয়েছিলো সেই আইনগুলো গণতান্ত্রিক দেশে উপযোগী নয়। মামলা জট এর অন্যতম একটা কারণ। তাই সরকার এই আইনগুলো পরিবর্তন করে গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের আলোকে আইন করার জন্য কাজ করছে। প্রধান বিচারপতি এই দেশ স্বাধীন করার জন্য মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন- দেশ স্বাধীন নাহলে আমি প্রধান বিচারপতি হতে পারতাম না। এতোদিন ধর্ম নিরপেক্ষতা পরিপূর্ণ ছিলনা, তিনি প্রধান বিচরপতি হওয়ার পর মনে করেন দেশে পূরোপুরি ধর্ম নিরপেক্ষতা রয়েছে। তাই তিনি যতদিন দায়িত্বে আছেন ততদিন যেনো বিচার বিভাগ ও দেশের উন্নতির জন্য কাজ করে যেতে পারেন সেই দোয়া চান। রিক্সা চালক, বাসের চালক ও হেলপার প্রাণ হারাচ্ছে। এদের পরিবার কোথায় আশ্রয় পাবে। তাই তিনি অবরোধ ও হরতালকারীদের প্রতি আহবান জানান, এসব মানুষ যাতে প্রাণ না হারায় সেলক্ষ্যে আপনারা আরও সহনশীল ও সচেতন হোন। S K Singhaতিনি আরও বলেন- আমরা খুব খারাপ সময় অতিবাহিত করছি। সাধারণ মানুষের চলাফেরা নিয়ে শঙ্কিত আছি। সাধারণ মানুষ যেভাবে মৃত্যু বরণ করছে তা আমাকে পীড়া দেয়। তাই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে আরো সজাগ থাকতে হবে যাতে সাধারণ মানুষ প্রাণ না হারায়। গত বৃহস্পতিবার রাত ৯টায় মৌলভীবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির বার্ষিক নৈশভোজে অনুষ্টানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট রমাকান্ত দাশ গুপ্তের সভাপতিত্বে ও এডভোকেট মাসুক মিয়ার পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- সমাজকল্যাণমন্ত্রী সৈয়দ মহসীন আলী এমপি। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- জেলা ও দায়রা জজ মনির আহমদ পাটোয়ারী, চিফ জুডিশিয়েল ম্যাজিষ্ট্রেট মমতাজ বেগম, জেলা প্রশাসক মো: কামরুল হাসান, পুলিশ সুপার তোফায়েল আহাম্মদ, পৌর মেয়র ফয়জুল করিম ময়ূন, জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক সাইয়েদ মঈন উদ্দিন জুনেল, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট মুজিবুর রহমান মুজিব ও সাবেক সভাপতি এডভোকেট শান্তিপদ ঘোষ প্রমুখ। প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে আরো বলেন- যাবজ্জীবন কারাদন্ডপ্রাপ্ত অনেক দুর্ধষ আসামী কিছুদিন কারাবাসের পর বের হয়ে পুনরায় অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে। যাবজ্জীবনের অর্থই হলো, যাবজ্জীবন কারাদন্ড প্রাপ্ত ব্যাক্তির জীবনের বাকী জীবনকে কারাগারে থাকা বুঝায়। এই যাবজ্জীবনকে ভুল ব্যাখা দিয়ে অপরাধীরা কম সময়ে জেল থেকে বের হয়ে যাচ্ছে। দেশে বর্তমানে ৩০ লক্ষ মামলা বিচারাধীন আছে। এই মামলাগুলো নিষ্পত্তি করতে তিনি সারা দেশের আইনজীবী সহযোগিতা চেয়েছেন।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close