নগরীর উন্নয়ন বাধাগ্রস্থ করতে মেয়রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে

সিলেট পেশাজীবী পরিষদ‘র সংহতি সমাবেশে মাসউদ খান

fileভাষা সৈনিক ও শিক্ষাবীদ অধ্যক্ষ মাসউদ খান বলেন, সিলেট নগরীর উন্নয়ন বাধ্যগ্রস্থ করতে আরিফুল হক চৌধুরী বিরুদ্ধে সড়যন্ত্র চলছে। সেই হিন প্রচেষ্ঠা বন্ধ করতে সিলেটবাসীকে ঐক্যবন্ধ আন্দোলন সংগ্রাম গড়ে তুলতে হবে। আরিফুল হক চৌধুরীর বিরুদ্ধে যারা ষড়যন্ত্র লিপ্ত রয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে হুশিয়ারী উচ্চারণ করে তিনি বলেন. সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র বন্ধ করে সিলেট নগরীর উন্নয়ন কাযক্রমে সহযোগিতার হাত প্রসারিত করুণ। নাগরিক সেবাপ্রদানে আরিফুল হক চৌধুরী যে ভূমিকা রেখেছেন, তা সিলেটবাসী তথা দেশবাসী গণমাধ্যোমের মধ্যে দিয়ে অবলোকন করেছেন। । আরিফুল হক চৌধুরীর নাম সিলেটের কৃতি সন্তান সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়া হত্যাকান্ডের সম্পূরক চার্জশিট থেকে বাদ দিয়ে নাগরিক সেবা সু-নিশ্চিত করার আহবান জানান তিনি।
গতকাল বৃহস্পতিবার সিলেট পেশাজীবি পরিষদের ডাকে সংহতি সমাবেশে সংহতি প্রকাশ করে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সিলেট সিটি কর্পোরেশন প্রাঙ্গনে গতকাল সকাল ১১টায় সিলেট পেশাজীবী পরিষদ‘র ডাকে সংহতি সমাবেশে সভাপতির বক্তব্য রাখেন পরিষদের আহবায়ক বিশিষ্ট শিক্ষবীদ আতাউর রহমান পীর। তিনি বলেন, আমরা সিলেট বাসীকে সাথে নিয়ে সিলেটের উন্নয়নের স্বার্থে সিলেটের কৃতি সন্তান সাবেক সফল অর্থমন্ত্রী শাহ এ এম এস কিবরিয়া হত্যাকান্ডের ৩য় দফা সম্পূরক চার্জসিট থেকে আরিফুল হক চৌধুরীর নাম বাদ দেওয়ার জন্য আন্দোলন সংগ্রাম চালিয়ে যাব। সেই আন্দোলন সংগ্রামে আপনাদের সার্বিক সহযোগিতার আহবান জানাচ্ছি। তিনি বলেন আগামী ২১ই ডিসেম্বর রবিবার পরে আমরা আমাদের পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করব।
সিলেট পেশাজীবী পরিষদ‘র যুগ্ম আহবায়ক সাংবাদিক এমদাদ হোসেন চৌধুরী দীপু ও সদস্য সচিব সাংবাদিক নুরুল ইসলাম‘র যৌথ পরিচালনায় সংহতি সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র সালেহ আহমদ চৌধুরী, নগর উন্নয়ন কমিটির চেয়ারম্যান কাউন্সিলর ফরহাদ চৌধুরী শামীম, কাউন্সিলর রাজিক মিয়া, কাউন্সিলর সিকন্দর আলী, কাউন্সিলর সৈয়দ তৌফিকুল হাদী, কাউন্সিলর আব্দুর রকিব তুহিন, কাউন্সিলর এবিএম জিল্লুর রহমান উজ্জ্বল, কাউন্সিলর আব্দুল মুহিত জাবেদ, কাউন্সিলর রেজওয়ান আহমদ, কাউন্সিলর দিলওয়ার হোসেন সজীব, কাউন্সিলর সোহেল আহমদ রিপন, কাউন্সিলর এডভোকেট রোকশানা বেগম শাহনাজ, কাউন্সিলর সালেহা কবির শেপী, কাউন্সিলর দীবা রাণী দে বাবলী, কাউন্সিলর কহিনুর ইয়াছমিন ঝর্ণা, কাউন্সিলর আমেনা বেগম রুমি, অনলাইন প্রেসক্লাব‘র সভাপতি কবি মুহিত চৌধুরী, দৈনিক জালালাবাদ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আজিজুল হক মানিক, শাবি শিক্ষক সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ড. মোজাম্মেল হক, বিশিষ্ট আইনজীবি এডভোকেট নুরুল হক, এডভোকেট আব্দুর রকিব চৌধুরী, এডভোকেট আব্দুল গফ্ফার, জাতীয়তাবাদী আইনজীবি ফোরাম‘র সভাপতি আশিক উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আতিকুর রহমান সাবু, আমরা সিলেটবাসীর আহবায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রাজ্জাক, আম্বরখানা ব্যবসায়ী সমিতি‘র নেতা আব্দুল মান্নান পুতুল, কুতুবুর রহমান চৌধুরী, বিশিষ্ট সাংবাদিক ও কলামিষ্ট শামছুল ইসলাম শামীম, সিলেট বিভাগ জনকল্যাণ ট্রাষ্টর চেয়ারম্যান মাওলানা আব্দুল মালিক চৌধুরী, জাতীয় ইমাম সমিতির সভাপতি মাওলানা হাবিব আহমদ শিহাব, সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, বাস পরিবহন মালিক নেতা আব্দুস সত্তার মামুন, সিলেট ছাত্র ও যুব কল্যাণ ফেডারেশনের চেয়ারম্যান এইচ এম আব্দুর রহমান, মাদানী কাফেলার সভাপতি রুহুল আমীন নগরী, সিলেট সিটি কর্পোরেশন মাংস ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি লালু মিয়া, মুসলীম ঐক্য পরিষদ‘র সভাপতি মাওলানা আসলাম রাহমানী, বৃহত্তর গণদাবী পরিষদ (তৃণমূল) আহবায়ক আখলাক আহমদ চৌধুরী, যুগ্ম আহবায়ক ডাঃ হাবিবুর রহমান, জাতীয় মানবাধিকার সোসাইটি সিলেট জেলার সভাপতি এডভোকেট আল আসলাম মুমিন, সাধারণ সম্পাদক মোঃ এজাজ উদ্দিন, ইয়ুথ ফোরাম কেন্দ্রীয় সদস্য আব্দুল মজিদ, রিক্রাা মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদ‘র সভাপতি মখলিছ মিয়া, দূর্জয় সমাজিক সংগঠনের সভাপতি কামরুজ্জামান দিপু, হোটেল রেস্তোরা শ্রমিক দলের সভাপতি রজব আলী, বীর বিক্রম ওয়ামিন ক্রীড়া চক্রের সভাপতি গোলাম জাকির চৌধুরী, সিলেট ফেন্ডস উন্নয়ন পরিষদ‘র সাধারণ সম্পাদক নজমুল ইসলাম, জাতীয়তাবাদী শ্রমিক দল সিলেট জেলার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এম এ হান্নান, চালিবন্দ যুব কল্যাণ সংঘ‘র সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট ওবায়দুর রহমান ফাহিম, কুশিয়ারা বেল্ট উন্নয়ন ফোরাম‘র সাধারণ সম্পাদক এস এম নাসির উদ্দিন, জাতীয়তাবাদী শ্রমিক দলের সভাপতি সুরমান আলী, সাধারণ সম্পাদক ইউনুছ মিয়া, সিলেট সার্ভিস মাইক্রেবাস ও টেক্রী চালক সমিতির সভাপতি আলাউদ্দিন সওদাগর, সংবাদপত্র হকার্স দল মহানগরের সভাপতি শফিক মিয়া, সহ-সভাপতি হাসু মিয়া, এসনিক‘র সাধারণ সম্পাদক জুরেজ আব্দুল্লাহ, সিলেট উন্নয়ন সংস্থার সাধারণ সম্পাদক এম এহসানুল করিম মিশু, গ্রীণ সিলেট সমাজিক সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আলী আকবর রাজন, সিলেট নগরীর বিভিন্ন মসজিদের ইমাম ও খতিব বৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মাওলানা আব্দুর রহিম, মাওলানা মান্নান, মাওলানা আব্দুর রহমান, মাওলানা নওফল আহমদ, মাওলানা আব্দুল আহাদ, মাওলানা খলিলুর রহমান, মাওলানা জাহাঙ্গীর আলম, মাওলানা সাইদুর রহমান, মাওলানা আব্দুল করিম, মাওলানা মুজিবুর রহমান, মাওলানা শিব্বির আহমদ, মাওলানা আব্দুস সালাম, মাওলানা জরিফ উদ্দিন, মাওলানা শফিকুর রহমান, মাওলানা আবেদ হাসান, মাওলানা শরিফ উদ্দিন সহ সিলেট বিভিন্ন সামাজিক সংসগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন। বিজ্ঞপ্তি

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close