রোটারেক্টরদের দৃপ্ত শপথে মুখরিত কিন ব্রিজ : স্বাধীনতা বিরোধীদের রূখতে হবে

রোটারেক্ট ডিস্টিক্ট অর্গানাইজেশনের (৩২৮২) আলোক প্রজ্জ্বলন ও শপথ গ্রহন অনুষ্ঠানে মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির ভিসি প্রফেসর ড. সালেহ উদ্দিন আহমদের সঙ্গে অতিথিরা।

রোটারেক্ট ডিস্টিক্ট অর্গানাইজেশনের (৩২৮২) আলোক প্রজ্জ্বলন ও শপথ গ্রহন অনুষ্ঠানে মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির ভিসি প্রফেসর ড. সালেহ উদ্দিন আহমদের সঙ্গে অতিথিরা।

ওদের প্রত্যেকের হাতে প্রজ্জ্বলিত মোমবাতি, সেটির আলোয় উদ্ভাসিত সিলেট কিন ব্রিজ। তাদের প্রত্যেকের বুকে হাত। চোখে মুখে আলোর ঝলকানি। তাদের দৃপ্ত শপথ এদেশকে মুক্ত করতে হবে শকুনদের হাত থেকে। এসব শকুনরা এখনো ঘুরে বেড়াচ্ছে দেশের নীল আকাশে। যাদের কারনে পিছিয়ে আছে আমাদের এদেশ। সকল স্বাধীনতা বিরোধীদের রূখতে হবে এখনই। তাদের দিতে হবে কঠিন শাস্তি। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় রোটারেক্ট ডিস্ট্রিক্ট অর্গানাইজেশন (৩২৮২) মহান বিজয় দিবস উপলে সারা দেশের ন্যায় ‘অনির্বাণ ২০১৪’ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। সারা দেশের ৬৪ টি জেলায় একই সময়ে এ অনুষ্ঠান হয়।

তখন সন্ধ্যা ৭ টা। কানায় কানায় পরিপূর্ণ সুরমা নদীর তীর। আলোকিত কিনব্রিজ। প্রত্যেক রোটারেক্টদের হাতে থাকা মোমের আলোয় মিইয়ে যায় কিন ব্রিজ থেকে বিচ্ছুরিত সেই আলো। বজ্র কন্ঠে তাদের দৃপ্ত শপথে প্রাণ ফিরে পায় অনেকটা স্তব্ধ কিন ব্রিজ এলাকা। তাদের হাতে থাকা মোমের আলোয় ভেসে উঠল ব্যানারে লেখা ‘স্বদেশ বিনির্মাণে আমরাই হব জাগ্রত অগ্রদূত’। অনুষ্ঠানে আসা অতিথিদের ব্যনারে লেখা দেখে বুঝতে বাকি রইলনা এদেশ বিনির্মাণে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখতে পারে রোটারেক্টরা। তাদেরকে দিয়েই গড়া সম্ভব সুন্দর বাংলাদেশ। কারন তাদের প্রত্যেকের মধ্যে রয়েছে সুন্দর দেশ গড়ার স্বপ্ন। আর সেই স্বপ্ন নিয়েই তারা এগিয়ে যাবে বলে বক্তারা অভিমত ব্যক্ত করেন।
শুরতেই সমবেত কন্ঠে জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন করেন রোটারেক্টররা। এরপর বুকে হাত রেখে নেন দৃপ্ত শপথ। শপথ বাক্য পাঠ করান বীর মুক্তিযোদ্ধা সদর উদ্দিন। শপথ অষ্টুষ্ঠানের পর পরই শুরু হয় আলোচনা সভা। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন শাবির সাবেক ভিসি বর্তমানে মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. সালেহ উদ্দিন আহমদ। রোটারেক্ট ডিস্ট্রিক্ট রিপ্রেন্টেটিভ (ডিআরআর) অ্যাডভোকেট হোসাইন আহমদ শিপনের পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা এমএ সাত্তার, রোটারী ডিস্ট্রিক্ট গভর্নর ইঞ্জিনিয়ার এমএ লতিফ, ডিআরসিসি মুফতি এএস শামীম আহমদ ও পিডিআরআর কামরুজ্জামান চৌধুরী রোম্মান। আলোচনায় অংশ নেন রোটারিয়ান আজাদ শিপন, রাহাত তরফদার, শাহ মিনহাজ, ডিস্টিক্ট সেক্রেটারি কয়েস আহমদ সুমন, ইমরান চৌধুরী, শাহ জুনেদ আলী, কিবরিয়া সারোয়ার, আবুল হোসেন, বিনয় দে সজিব, রফিকুল আলম প্রমূখ। পরে ডিআরআর নিউজ লেটার ‘দি ভয়েস অব ভিক্টরি’র’ মোড়ক উম্মেচন করেন অনুষ্ঠানে আগত অতিথিরা।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close