স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতায় মৌলভীবাজার জেলা পরিষদ একটি উদাহরন

——-মৌলভীবাজারে সরকার দলীয় হুইপ এম শাহাবউদ্দিন

pic-03মধু চৌবে শ্রীমঙ্গল থেকেঃ স্থানীয় সরকার শক্তিশালী হলে গনতন্ত্র শক্তিশালী ও স্থিতিশীল হবে, আর এই লক্ষেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের ৬১টি জেলায় জেলা পরিষদ প্রশাসক নিয়োগ করেছেন। মৌলভীবাজারে প্রবীন রাজনীতিবিদ মুক্তিযোদ্ধা আজিজুর রহমান জেলা পরিষদ প্রশাসক হবার পর গত তিন বছর ধরে উন্মুক্তভাবে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মকান্ড ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা অবহিতকরন অনুষ্টান হচ্ছে। তাই স্থানীয় সরকার ব্যবস্থার স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতায় মৌলভীবাজার জেলা পরিষদ একটি উদাহরন হয়ে থাকবে। মৌলভীবাজার জেলা পরিষদ আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে সরকার দলীয় হুইপ এম শাহাব উদ্দিন এসব কথা বলেন।

স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা-গনতন্ত্রের মূলকথা এই শ্লোগান নিয়ে মৌলভীবাজার জেলা পরিষদের উদ্দ্যোগে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মকান্ড ও ভাবিষ্যৎ কর্মপরিকল্পনা অবহিতকরন এই অনুষ্ঠানে অস্বচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের আর্থিক অনুদান, গরীব ও মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের এককালীন বৃত্তি এবং প্রশিক্ষিত অস্বচ্ছল মহিলাদের মধ্যে সেলাই মেশিন বিতরন করা হয়েছে এবং সম্পূর্ন অনুষ্ঠানটি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে উৎসর্গ করা হয়েছে।
গতকাল বুধবার দুপুরে শহরের পৌর জনমিলন কেন্দ্রে মৌলভীবাজার জেলা পরিষদ প্রশাসক আজিজুর রহমানের সভাপতিত্বে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মকান্ড ও ভাবিষ্যৎ কর্মপরিকল্পনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সরকার দলীয় হুইপ এম শাহাব উদ্দিন। অনুষ্ঠানে ২০১৩ সালে এসএসসি ও এইচ এস সি পরীক্ষায় জিপিএ এ প্লাস প্রাপ্ত ৩৩৮ জন ছাত্র-ছাত্রীদের এককালীন বৃত্তি, মুক্তিযুদ্ধে অবদানের জন্য চার জন মুক্তিযোদ্ধাকে বিশেষ সম্মাননা পদক, যোদ্ধাহত ও অস্বচ্ছল ১২০ জন মুক্তিযোদ্ধাকে আর্থিক অনুদান এবং প্রশিক্ষিত অস্বচ্ছল ১০০ জন মহিলাদের মধ্যে সেলাই মেশিন বিতরন করা হয়েছে। এছাড়াও ৩০৬ জন কম্পিউটার ও সেলাই মেশিন প্রশিক্ষনার্থীদের সনদপত্র দেয়া হয়।
এ সময় জেলা পরিষদ প্রশাসক অজিজুর রহমান জানান ২০১৩-১৪ অর্থ বছরে এডিপি ও নিজস্ব তহবিল থেকে ৯ কোটি ৩৮ লক্ষ টাকা ব্যয়ে জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে রাস্থা, ব্রীজ, কালভার্ট, ধর্মীয় উপাসনালয় নির্মান, গভীর নলকুপ স্থাপনসহ বিভিন্ন অবকাঠামো উন্নয়নে ৩১৮ টি প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হয়েছে । এবং প্রত্যেকটি প্রকল্পই সচ্ছতার সহিত বাস্তবায়ন করা হয়েছে। এ ছাড়াও আরো বক্তব্য রাখেন সিলেট জেলা পরিষদ প্রশাসক আবু সুফিয়ান, মৌলভীবাজার পুলিশসুপার তোফায়েল আহমদ, জেলা আওয়ামীলীগ সম্পাদক নেছার আহমদ, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার জামাল উদ্দিন, বিএনএসবির সম্পাদক ইয়াহিয়া মুজাহিদ,সহ বিভিন্ন উপজেলা চেয়ারম্যন ও ভাইস চেয়ারম্যানবৃন্দ।
এসময় জেলা পরিষদ প্রশাসক আজিজুর রহমান বলেন, প্রত্যেক জেলায় প্রশাসক নিয়োগ দিয়ে তৃণমুল মানুষের চাহিদা অনুযায়ী অগ্রাধিকার ভিত্তিতে উন্নয়নের এক রুপ দিয়েছেন জন নেত্রী শেখ হাসিনা। তিন্ িআরো জানান তিনি মৌলভীবাজারে জেলা পরিষদের মাধ্যমে সম্পুন্ন সচ্ছতা ও জবাবদিহিতা রেখে উন্নয়ন কাজ পরিচালনা করছেন। তবে বিশাল ক্ষুদার রাজ্যে তার কাছে আহার অতি অল্প। সকলের ক্ষুদা নিবারণের প্রয়াস তার মনে আছে এবং জননেত্রীর ইচ্ছা ও আকাঙ্কা অনুযায়ী তাও ক্রমশ পুরণ হবে বলে তার বিশ্বাস।
বক্তারা আরো বলেন, জেলা পরিষদ স্থানীয় পর্যায়ে যোগাযোগ, শিক্ষা,স্বাস্থ্য,ক্রীড়া,সংস্কৃতি,দারিদ্র বিমোচন, নারী উন্নয়নসহ বিভিন্ন অবকাঠামো উন্নয়নের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ন অবদান রাখছে যার ফল পাচ্ছেন তৃণমুলের জনগন। তৃণমুলের জনগনের কথা চিন্তা করে জেলা পরিষকে আরো শক্তিশালী করা প্রয়োজন।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close