কোর্ট পয়েন্টে মঙ্গলবারের বিক্ষোভ সমাবেশ সফল করার আহ্বান

২০ দলীয় জোট সিলেট মহানগর-এর জরুরী সভায় নেতৃবৃন্দ

সিলেট মহানগর ২০ দলীয় জোট নেতৃবৃন্দ বলেছেন, অবৈধ সরকার নিজেদের অপকর্ম ঢাকতে সংবাদপত্রের কন্ঠরোধ করতেই নতুন বাকশালীয় সম্প্রচার নীতিমালা প্রণয়ন করতে যাচ্ছে। সরকারের এই নীতিমালার বিরুদ্ধে সাংবাদিক, সুশীল ও বুদ্ধিজীবীসহ দেশপ্রেমিক জনতা অবস্থান নিয়েছে। গণমাধ্যম বিধবংসী এই নীতিমালা প্রণয়নের প্রতিবাদে ২০ দলীয় জোট আগামী মঙ্গলবার দেশব্যাপী বিক্ষোভ সমাবেশ কর্মসূচী ঘোষণা করেছে। সিলেট মহানগর জোটের উদ্যোগে মঙ্গলবার বিকেল ৫ টায় নগরীর ঐতিহাসিক কোর্ট পয়েন্টে অনুষ্ঠিতব্য বিক্ষোভ সমাবেশকে সর্বাত্মকভাবে সফল করার জন্য জোটভুক্ত দল সমূহের অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানান তারা। এছাড়া ২০ আগষ্ট থেকে ৩১ আগষ্ট পর্যন্ত জোটের উদ্যোগে দেশব্যাপী গণসংযোগ কর্মসূচী সফলের জন্য সিলেটবাসীর প্রতি আহবান জানানো হয়।
গতকাল রোববার ২০ দলীয় জোট সিলেট মহানগরের উদ্যোগে নগরীর ভাতালিয়াস্থ নগর বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয়ে এক জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়। মহানগর জোট-এর যুগ্ম আহবায়ক ও নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাইয়ুম জালালী পংকীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় মঙ্গলবারের বিক্ষোভ সমাবেশ সফল এবং ২০ থেকে ৩১ আগষ্ট পর্যন্ত গণসংযোগ কর্মসূচী সফলের লক্ষ্যে বিস্তারিত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়।
সভায় বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন-মহানগর জোট-এর যুগ্ম আহবায়ক ও মহানগর জমিয়তের সভাপতি মাওলানা মনছুর হোসেন রায়পুরী, মহানগর জোট-এর সদস্য সচিব ও নগর জামায়াতের নায়েবে আমীর হাফিজ আব্দুল হাই হারুন, মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি তারেক আহমদ চৌধুরী, মহানগর খেলাফত মজলিসের সহ-সভাপতি আব্দুল হান্নান তাপাদার, ইসলামী ঐক্যজোট মহানগর সভাপতি মুফতি ফয়জুল হক জালালাবাদী, জাগপার সিলেট জেলা সভাপতি মকসুদ হোসেন, এলডিপি জেলা সভাপতি সায়েদুর রহমান চৌধুরী রূপা, লেবার পার্টি মহানগর সভাপতি মাহবুবুর রহমান খালেদ, জাতীয় পার্টি (বিজেপি-আন্দালিব পার্থ) জেলা আহবায়ক মোজাম্মেল হোসেন লিটন, মহানগর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক আজমল বখত চৌধুরী সাদেক, মহানগর জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারী মাওলানা সোহেল আহমদ, মহানগর খেলাফত মজলিসের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ আব্দুল হান্নান, মহানগর জমিয়তের সহ-সভাপতি মাওলানা মাহমুদুল হাসান ও যুগ্ম সম্পাদক মাওলানা আব্দুল মালিক চৌধুরী।
নেতৃবৃন্দ বলেন, সরকার ২০ দলীয় জোটের আন্দোলন কর্মসূচীতে দেশপ্রেমিক জনতার স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ দেখে ভীত সন্ত্রস্ত হয়ে পড়েছে। দেশব্যাপী জোটের নেতাকর্মীদের মিথ্যা মামলায় কারাগারে আটকে রেখে নির্যাতন-নিপীড়ন চালাচ্ছে। তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা পুনর্বহালের দাবীতে দেশের গণতন্ত্রকামী জনতার আন্দোলন বাধাগ্রস্থ করতে যে কোন ষড়যন্ত্র দেশপ্রেমিক জনতা ঐক্যবদ্ধভাবে রাজপথে ঝাপিয়ে পড়বে। অবিলম্বে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা পুনর্বহাল, জোট নেতৃবৃন্দের নিঃশর্ত মুক্তি, গ্রেফতার, পুলিশী হয়রানী বন্ধ করার জন্য সরকারের প্রতি জোর দাবী জানান।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close