মুহিবুর রহমানের কার্যালয়ে হামলা-গাড়ি ভাংচুর : বিশ্বনাথ আ’লীগের ১৮ নেতাকর্মীর জামিন লাভ

বিশ্বনাথ প্রতিনিধিঃ বিশ্বনাথ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মুহিবুর রহমানের কার্যালয়ে ‘হামলা ও গাড়ি ভাংচুর’র ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় জামিন লাভ করেছেন উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের ১৮ নেতাকর্মী। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে সিলেট জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্র্যাট ১ম ও আমলী আদালতের বিচারক নাজমুল হোসেন চৌধুরীর আদালতে আসামীরা জামিন আবেদন করলে আদালত তাদের জামিন মঞ্জুর করেন।
জামিন প্রাপ্তরা হলেন- উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বাবুল আখতার, উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ও আ’লীগ নেতা পংকি খান, উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক নিখিল পাল, আইন বিষয়ক সম্পাদক শফিক উদ্দিন স্বপন, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক শেখ বাবরুছ মিয়া, আওয়ামী লীগ নেতা মাহবুবুর রহমান লিলু, ওয়ারিছ খান, জেলা যুবলীগ নেতা মাসুদ আহমদ (মকসুদ), উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক মকদ্দছ আলী, যুগ্ম আহবায়ক আলতাব হোসেন, যুবলীগ নেতা নূরুল হক মেম্বার, শাখাওয়াত হোসেন, শামীম আহমদ, আব্দুল আজিজ সুমন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারন সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম সিরাজ, উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক ফয়জুল ইসলাম জয়, যুগ্ম আহবায়ক মুহিবুর রহমান সুইট, ছাত্রলীগ নেতা জয়নাল আহমদ।
উলে¬খ্য, গত ২০১০ সালের ২ মার্চ বিকেল উপজেলা পরিষদের তৎকালীন চেয়ারম্যান মুহিবুর রহমানের কার্যালয়ে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। এতে অফিসের কাঁচের গ¬াস ও চেয়ারম্যানের ব্যক্তিগত হাই লাক্স গাড়ী (ঢাকা মেট্টো-ঠ ১৪-০৪৪১) ভাংচুর করা হয়। এঘটনায় মুহিবুর রহমানের গাড়ি চালক মোশাহিদ আলী বাদি হয়ে ওই দিন রাতে বিশ্বনাথ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগপত্রটিকে পুলিশ মামলা হিসেবে আমলে না নিলে ওই বছরের ৭ এপ্রিল আদালতে অভিযোগ দায়ের করা হয়। এরপর আদালত ওসিকে মোশাহিদ আলীর অভিযোগটি মামলা হিসেবে নতিভোক্ত করার নির্দেশ প্রদান করেন। কিন্তু ৩ মে পর্যন্ত মামলা নতিভোক্ত করা না হলে আবারও আদালতের কাছে শরনাপন্ন হন বাদী। ৪ মে আদালতে পুনঃনির্দেশে অভিযোগটি মামলা হিসেবে নতিভোক্ত করেন বিশ্বনাথ থানার ওসি। মামলা নং ৩ (তাং ৪/০৫/১০ইং) ও জিআর মামলা নং ৭৭/২০১০ইং। মামলায় আসামী করা হয় উপজেলা আওয়ামীলীগ ও সহযোগি সংগঠনের ২০ নেতাকর্মী। সম্প্রতি উক্ত আসামীদের বিরুদ্ধে আদালত গ্রেফতারি পরওয়ানা জারি করেন। গতকাল আসামীরা আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করলে আদালত তাদের আবেদন মঞ্জুর করেন।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close